আজ শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ


Real madrid trained 16 12 17 680726070
 

ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনাল আজ। শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ ও গ্রেমিও। বাংলাদেশ সময় আজ শনিবার রাত ১১টায় আবুধাবিতে মুখোমুখি হবে এই দুই দল।

রিয়ালের মাদ্রিদের গত মৌসুমটা ছিল সোনায় মোড়ানো! একের পর এক শিরোপা জয়ের উৎসবে মেতেছিল জিনেদিন জিদানের দল। স্প্যানিশ লা লিগা, স্প্যানিশ সুপার কাপ, উয়েফা সুপার কাপ এবং উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছে রিয়াল। ফাইনালে গ্রেমিওকে হারাতে পারলেই প্রথম দল হিসেবে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের ট্রফি জয়ের উচ্ছ্বাসে ভাসবে স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

বেল-রোনালদোরা কী পারবেন? এমন প্রশ্ন উঠার কারণটা হলো রিয়ালের সেমিফাইনালের পারফরম্যান্স! তুলনামূলক খর্ব শক্তির দল আল জাজিরার বিপক্ষে জিততেই যে ঘাম ঝড়েছিল জিদানের শিষ্যদের! যদিওবা শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের জয়েই স্বস্তি মেলে রিয়াল সমর্থকদের।

আবুধাবিতে ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটির বিপক্ষে মাঠে নামার আগে একটি পরিসংখ্যান অবশ্য উজ্জীবিত করতেই পারে জিনেদিন জিদানের শিষ্যদের। স্পেনের বাইরে ফাইনালে খেলা মানেই রিয়ালের জয়! হ্যাঁ, ২০০০ সালের পর বিদেশের মাটিতে যতবারই ফাইনালে নেমেছে শোকেসে একটি করে ট্রফি জমা করেই ফিরেছে তারা।

সর্বশেষ ২০০০ সালের ২৯ নভেম্বর স্পেনের বাইরে কোনো টুর্নামেন্টের ফাইনালে হেরেছিল রিয়াল। টোকিওতে অনুষ্ঠিত আন্তঃমহাদেশীয় কাপ ফাইনালে বোকা জুনিয়র্সের কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। এরপর বিদেশের মাটিতে খেলা ১১টি ফাইনালের কোনোটিতেই পরাজয়ের স্বাদ পায়নি সার্জিও রামোস-মার্সেলোরা। আজ এ পরিসংখ্যানই জিদানের দলের জন্য বড় প্রেরণা।

গত বছর জাপানের ক্লাব কাশিমা অ্যান্টলার্সকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স হয়েছিল রিয়াল। এবার তাদের প্রতিপক্ষ ব্রাজিলিয়ান ক্লাব গ্রেমিও। যারা সেমিফাইনালে অতিরিক্ত সময়ের গোলে পাচুচাকে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট কাটে। শক্তির বিচারে রিয়াল এগিয়ে থাকলেও চমকে দিতে পারে ব্রাজিলিয়ান ক্লাবটিও।

তবে জিদানের জন্য স্বস্তির খবর, পুরোপুরি ফিট গ্যারেথ বেল। গত ম্যাচে বদলি হিসেবে নেমেই গোল করে দলকে জয় উপহার দেন এই ওয়েলস তারকা। রোনালদোও রয়েছেন তার সেরা ফর্মে। এই ম্যাচ জিতলে তিনবার ক্লাব বিশ্বকাপ জয়ের রেকর্ড গড়বে রিয়াল। স্পর্শ করবে তাদেরই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে।

তবে রোনালদোর সামনে মেসিকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার হাতছানি। কেননা এর আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়েও যে, ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন সিআর সেভেন!


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*