রাখাইনের স্টেডিয়ামে আশ্রয় নেওয়া হিন্দুদের মংডুতে নিচ্ছে মিয়ানমার


রাজ্য সরকারের অনুরোধে একটি ফুটবল স্টেডিয়ামে আশ্রয় নেওয়া রাখাইনের হিন্দু অধিবাসীদের মংডুতে সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু করেছে মিয়ানমার। গত আগস্টে ওই এলাকায় সেনা অভিযান শুরুর পর এসব হিন্দু অধিবাসীরা পালিয়ে ওই স্টেডিয়ামে আশ্রয় নেয়।

মিয়ানমারের সংবাদমাধ্যম ইরাবতী-এর খবরে বলা হয়, গত ২৮ নভেম্বর হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতাদের সঙ্গে রাজ্য সরকারের বৈঠকের পর গত মঙ্গলবার থেকে হিন্দুদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। তারা সবাই রাখাইনের রাজধানী সিত্তির ড্যানিওয়াদী ফুটবল স্টেডিয়ামে আশ্রয় নিয়েছিল।

হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা উ নি মাল ইরাবতী-কে জানান, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ওই স্টেডিয়ামে ঘরোয়া ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। এ কারণেই তাদের সরিয়ে নিয়ে মংডুর অস্থায়ী ক্যাম্পে তাদের রাখা হবে।

গত আগস্টে রাখাইনে সেনা অভিযানের সময় লাখ লাখ ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়। সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে কয়েক লাখ রোহিঙ্গা নাগরিক। তাদের বেশিরভাগ মুসলিম ধর্মালম্বী। জাতিসংঘ ওই অভিযানকে জাতিগত নিধনের ‘পাঠ্যপুস্তকীয় উদাহরণ’ বলে আখ্যা দিয়েছে।

দেশত্যাগ করা লাখ লাখ রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সম্প্রতি বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে মিয়ানমার।

রাখাইনের হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা উ নি মাল জানিয়েছেন, মংডুর জেলা প্রশাসন অফিসের পেছনে স্থাপিত অস্থায়ী ক্যাম্পে তাদের রাখা হবে। তবে তাদের আগে বসবাস করা জায়গায় আপাতত ফিরতে দেবে না জেলা প্রশাসন।