আট বছরের কারাদণ্ডের মুখে মেসির বড় ভাই


সম্প্রতি এক নৌ দুর্ঘটনায় পড়েছিলেন আর্জেন্টিনার তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসির বড় ভাই মাতিয়াস হোরাসিও মেসি। পরবর্তীতে মাতিয়াসের রক্তাক্ত বোট থেকে ০.৩৮ ক্যালিবারের পিস্তল উদ্ধার হওয়ার পর তার খোঁজ শুরু করে পুলিশ।

দুর্ঘটনায় আহত মাতিয়াস আর্জেন্টিনার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সেখান থেকেই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অস্ত্র মামলায় অপরাধী প্রমাণিত হলে মেসির বড় ভাইয়ের সাড়ে তিন থেকে আট বছরের কারাদণ্ড হতে পারে বলে জানিয়েছে আর্জেন্টিনার গণমাধ্যম।

মাতিয়াস চোয়াল ভেঙে মুখে অনেক কাটা-ছেঁড়া নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। মেসির ভাইয়ের দাবি, রোজারিওর কাছে পারানা নদীতে মটরবোট চালানোর সময় দুর্ঘটনা হয়েছে তার। বোটের মধ্যে রক্তের ছোপও দেখা যায়। এই ঘটনার তদন্ত করতে গিয়েই বোটের মধ্যে পাওয়া গেছে অবৈধ অস্ত্র।

হাসপাতালে একটু সুস্থ হলে মেসির ভাইকে রিমান্ডে নেয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে আদালতে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে, আর্জেন্টিনার আইনে সাড়ে আট বছরের জেল হতে পারে ম্যাতিয়েসের। এই অপরাধে সর্বনিম্ন শাস্তিই সাড়ে তিন বছরের জেল।

দেশটির রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ৩৫ বছর বয়সী মাতিয়াসকে গ্রেফতারের আবেদন জানান। এবারই প্রথম নয়, এর আগেও বহুবার তার বিরুদ্ধে আইন ভাঙার অভিযোগ উঠেছে। গত বছর তার গাড়ি থেকেও পিস্তল উদ্ধার হয়। অতীতে মাদক সেবনের জন্য মাতিয়াসের ৪৭০ ইউরো জরিমানাও হয়। ২০০৮ সালে কোমরে বেল্টের সঙ্গে পিস্তল রাখায় জন্য গ্রেফতার হয়েছিল মেসির এই ভাই।