ছক্কা মারার পরিকল্পনা ছিল পোলার্ডের!


কোনো সন্দেহ নেই, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচটা ইতোমধ্যেই দেখে ফেলেছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। রুদ্ধশাস সেই ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটসকে ৩ রানে হারিয়েছে মাশরাফি বিন মুর্তজার রংপুর রাইডার্স। শেষ ওভারে ঢাকার দরকার ছিল ১০ রান। প্রথম দুই বলে রান নেননি কাইরন পোলার্ড। তৃতীয় বলেই ছয় হাঁকান ডানহাতি এই ক্যারিবিয় অলরাউন্ডার। পরের বলটি ডট, পঞ্চম বলে পোলার্ড বোল্ড! শেষ বলে দরকার চার রান। কিন্তু আবু হায়দার রনির স্টাম্প ভেঙে রংপুরের জয় নিশ্চিত করেন লঙ্কান অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরা।

দল হারলেও ভক্ত-সমর্থকদের আক্ষেপ শেষ ওভারে দু’বার সুযোগ পেয়েও পোলার্ড সিঙ্গেল না নেওয়ায়। ম্যাচ শেষ হতেই তাই ক্যারিবিয় এই তারকার সমালোচনায় মেতেছেন ঢাকার ভক্ত-সমর্থকরা। তবে সতীর্থদের পাশে দাঁড়িয়েছেন পেসার আবু হায়দার রনি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে বাঁহাতি এই পেসার জানান, ছক্কা মারার পরিকল্পনা থেকেই হয়ত সিঙ্গেল নেননি পোলার্ড।

এ প্রসঙ্গে রনি বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে কারো সঙ্গে কথা হয়নি। ওর হয়ত পরিকল্পনা ছিল ছক্কা মারার। ওর জন্য দুটি বলই প্রয়োজন ছিল। দূর্ভাগ্যবশত ওর পরিকল্পনা সফল হয়নি। ম্যাচটি আমাদের ফেভারে আসেনি।’

পরাজয় দিয়েই টুর্নামেন্টের এবারের আসর শুরু করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। প্রথম ম্যাচে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে হারের পর সংবাদ সম্মেলনে রনি জানিয়েছিলেন, হারলেও আক্ষেপ নেই তাদের। তবে রংপুরের বিপক্ষে এমন হারে হতাশা প্রকাশ পেল রনির কণ্ঠে, ‘অবশ্যই বিষয় হতাশার। আমরা খুব ভালো অবস্থানে থেকেও জিততে পারলাম না। আমরা ভালো অবস্থানেই ছিলাম। দূর্ভাগ্যবশত ম্যাচটাতে হেরেছি, সবারই খারাপ লাগছে।’

জয়ের খুব কাছে থেকেও হারার কারণ জানতে চাইলে রনি বলেন, ‘আসলে দুর্বলতার কিছু নাই। টি-টোয়েন্টিতে যেদিন যারা ভালো খেলবে তারা জিতবে। এখানে ছোট বড় দলের কিছু নেই। আমরা কিছু ভুল হয়ত করেছি। সেগুলো ঠিক করে নিতে পারলে পরের ম্যাচে ওভারকাম করব।’