নেইমার-কাভানি দ্বন্দ্বের নেপথ্যে পিএসজি কোচ!


psg-2038058866

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে পেনাল্টি নিয়ে নেইমার ও এডিনসন কাভানির দ্বন্দ্ব বেশ নাড়া দিয়ে যায় ইউরোপীয় ফুটবলে। এর প্রভাব পড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) ড্রেসিংরুমেও। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছড়ায় নানান গুঞ্জন। নাটকীয়তার পর সমাধান হয়েছে নেইমার-কাভানি দ্বন্দ্বের। এই ঘটনা আড়ালে চলে যাওয়ার পর মুখ খুললেন উরুগুয়ের সাবেক অধিনায়ক দিয়েগো ফোরলান। তার মতে নেইমারের সঙ্গে কাভানির দ্বন্দ্বের মূলে ছিলেন পিএসজি কোচ উনাই এমেরি!

ফোরলান বলেন, ‘পেনাল্টি ও ফ্রি-কিক কে নেবে তা কোচের ঠিক করে দেওয়া উচিত। পিএসজি কোচ যদি এটা করতেন তাহলে ঘটনা এত দূর গড়াত না। কিন্তু তিনি কিছুই বলেননি। তবে কি দলের ফুটবলারদের সঙ্গে তার সম্পর্ক ভাল নয়? এমন গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে কোচের নীরবতা নিশ্চয়ই ভাল কিছুর ইঙ্গিত দেয় না।’

নেইমার-কাভানির এই সমস্যা লিওর বিপক্ষে সেই ম্যাচের পরই সমাধান করা যেত। তা না হওয়ায় এই দু’জনকে ঘিরে ফরাসি গণমাধ্যমে ছড়াতে থাকে মুখরোচক খবর। এখানেই পিএসজি কোচের ব্যর্থতা দেখছেন ফোরলান। একজন কোচ কেবল দলের ফরমেশন, ট্যাকটিকসই ঠিক করেন না। তার কাজের পরিধি আরও বড়। দলের শৃঙ্খলা রক্ষা থেকে শুরু করে খেলোয়াড়দের পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধের ব্যাপারটাতেও কোচের হস্তক্ষেপ করা উচিত বলে মনে করেন সাবেক এই প্লেমেকার।

এমেরির নীরবতাকে আবারও মনে করিয়ে দিয়ে ফোরলান বলেন, ‘ফুটবলারদের সঙ্গে তার আরও বেশি কথা বলা উচিত। নেইমার-কাভানির সমস্যা তিনি খুব সহজেই সমাধান করতে পারতেন। দলের উপর এর একটা বাজে প্রভাবও পড়েছে।’

২২২ মিলিয়ন ইউরো রেকর্ড ট্রান্সফার ফিতে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে গেছেন নেইমার। দলবদলের বাজার একাই কাঁপিয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান এই তারকা। স্বাভাবিকভাবেই গণমাধ্যমের নজর ছিল নেইমারের উপর। অন্যদিকে চার মৌসুম ধরে পিএসজিতে খেলেছেন কাভানি। তাই হঠাৎ করে নেইমারের উপর পেনাল্টির দায়িত্ব ছেড়ে দিতে রাজি হননি উরুগুইয়ান এই স্ট্রাইকার।