ফিল্ডস মেডেল জয়ী প্রথম নারী গণিতবিদ মির্জাখানির জীবনাবসান


mirzakhani-died-315867811

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক হাসপাতালে মারা গেছেন গণিতের নোবেল পুরস্কারখ্যাত ফিল্ডস মেডেল জয়ী প্রথম নারী গণিতবিদ মরিয়ম মির্জাখানি। ইরানের সংবাদ সংস্থা মেহের মির্জাখানির নিকটাত্মীয়ের বরাত দিয়ে ১৫ জুলাই শনিবার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

এর আগে নাসার সোলার সিস্টেম এক্সপ্লোরেশনের সাবেক ইরানী পরিচালক ফিরোজ নাদেরী ইনস্টাগ্রাম পোস্টে মৃত্যুর খবর প্রকাশ করেন। স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত ইরানী এই গণিতবিদ সম্প্রতি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ক্যান্সার আক্রান্ত কোষ তার অস্থি মজ্জায় ছড়িয়ে পড়ে। কয়েক বছর ধরেই ক্যান্সারের সাথে লড়াই করছিলেন তিনি।

মির্জাখানি ২০১৪ সালে বিশ্বের প্রথম নারী হিসেবে গণিতের নোবেল পুরস্কারখ্যাত কনভেটেড ফিল্ডস মেডেল পান। স্বতন্ত্র গবেষণায় অব্যাহত কৃতিত্বের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৬ সালের মে মাসে প্রথম ইরানী নারী হিসেবে মার্কিন অ্যাকাডেমী অব সায়েন্স নির্বাচিত হন তিনি। চল্লিশ বছর বয়সী এই গণিতবিদ স্টানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন।

মির্জাখানি ১৯৭৭ সালে ইরানের রাজধানী তেহরানে জন্মগ্রহণ করেন। ইসলামি প্রজাতন্ত্রের ছত্রছায়ায় বেড়ে ওঠেন তিনি। তিনি ১৯৯৪ এবং ১৯৯৫ সালে পরপর দু’বার আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডে সোনা জেতেন। ১৯৯৫ সালে অনুষ্ঠিত অলিম্পিয়াডে পুরো ৪২ পয়েন্ট অর্জন করেন মির্জাখানি। তিনি ১৯৯৯ সালে ইরানের প্রথিতযশা শরিফ ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি থেকে স্নাতক পাশ করেন। পরবর্তীতে বাকি শিক্ষাজীবন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সম্পন্ন করেন তিনি। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৪ সালে ডক্টোরাল ডিগ্রি অর্জনের পর মাত্র ৩১ বছর বয়সে স্টানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর হন মির্জাখানি।

তার মৃত্যুতে পাঠানো শোকবার্তায় ইরানের রাষ্ট্রপতি হাসান রুহানি জানিয়েছেন, ‘মির্জাখানির চলে যাওয়া বেদনাদায়ক।’ রুহানি তার জীবনের যাবতীয় বিজ্ঞানভিত্তিক অর্জনের প্রশংসা করে বলেন, ইরানী নারী বিজ্ঞানী হিসেবে ইরানকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরেছেন তিনি।