এক লুইসেই নাস্তানুবুদ ভারত


evin-lewis-10-july-17-1401592876

একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে লজ্জাজনকভাবে হেরেছে ভারত। রোববার কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের ওয়েস্ট ইন্ডিজ নয় বল আগেই নয় উইকেটে হারিয়েছে বিরাট কোহলির দলকে। এই ম্যাচের নায়ক অবশ্য এভিন লুইস। মাত্র ৬২ বলে তার খেলা ১২৫ রানের ঝলমলে ইনিংসের সৌজন্যেই যে এদিন অনায়াস জয় পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

সিরিজের একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে এদিন বিরাট কোহলির ভারত ১৯১ রানের জয়ের টার্গেট ছুড়ে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। জবাবে দুর্দান্ত শুরু করে ক্যারিবীয়ানরা। ৮২ রানে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে স্বাগতিকদের। ব্যক্তিগত ১৮ রানে কুলদ্বীপ যাদবের বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান হার্ড-হিটার ওপেনার ক্রিস গেইল। মারলন স্যামুয়েলসকে নিয়ে বাকী কাজটা করেন এভিন লুইস।

ভারতীয় বোলারদের দর্শক বানিয়ে দারুণভাবে ব্যাট চালিয়ে যান লুইস। মারলন স্যামুয়েলসকে নিয়ে দ্বিতীয় উইকেটে গড়েন ১১২ রানের অবিচ্ছেদ্য জুটি। আর এই জুটির সৌজন্যেই ১৮.৩ ওভারে একটিমাত্র উইকেট হারিয়ে ১৯৪ রান সংগ্রহ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ছয় চার এবং ১২ ছক্কার সৌজন্যে মাত্র ৬২ বলেই ১২৫ রান করেন এভিন লুইস। ২৯ বলে ৩৬ রান করে অপরাজিত থেকে দলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়েন স্যামুয়েলস।

এর আগে জ্যামাইকার কিংস্টনের সাবিনা পার্কে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করেছিল ভারতও। প্রথম উইকেটেই ৬৪ রানের জুটি গড়েন বিরাট কোহলি এবং শিখর ধাওয়ান। ধাওয়ান ২৩ আর কোহলি ৩৯ রান করে সাজঘরে ফিরে গেলে ভারতের হাল ধরেন রিশবাহ প্যান্ট এবং দিনেশ কার্তিক। তৃতীয় উইকেটে গড়েন ৮৬ রানের জুটি। রিশবাহ ৩৮ এবং ৪৮ রান করে সাজঘরে ফিরেন দিনেশ কার্তিক।

এরপর ধোনি-জাদেজারা ছিলেন একেবারেই নিঃস্প্রভ। ধোনি ২, কেদার যাদব ১৩ রান করে সাজঘরে ফিরেন। এছাড়া জাদেজা ১৩ এবং অশ্বিনের অপরাজিত ১১ রানের সৌজন্যে ছয় উইকেটের বিনিময়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৯০ রান সংগ্রহ করে ভারত। ওয়েস্ট ইন্ডিজের জেরোমে টেইলর এবং কেসরিক উইলিয়ামস উভয়ই প্রতিপক্ষের দুটি করে উইকেট লাভ করেন। আর মারলন স্যামুয়েলস লাভ করেন এক উইকেট। তবে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন সেঞ্চুরিয়ান এভিন লুইস।