মুফতি হান্নানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন পরিবারের ৪ সদস্য


মুফতি হান্নান

 

সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলার মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মুফতি হান্নানের সঙ্গে দেখা করেছেন তার পরিবারের চার সদস্য।

তাদের মধ্যে রয়েছেন- মুফতি হান্নানের স্ত্রী জাকিয়া পারভীন, দুই মেয়ে নিশাত ও নাজনীন এবং বড় ভাই আলী উজ্জামান। ১২ এপ্রিল বুধবার ভোর ৬টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে আসেন তারা।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাশিমপুর কারাগারের ডেপুটি জেলার মনির হোসেন। তিনি জানান, সকাল ৭টা ১০ মিনিটে মুফতি হান্নানের সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পান তার পরিবারের সদস্যরা। তখন থেকে তারা প্রায় ৭টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত হান্নানের সঙ্গে কথা বলেন। এরপর বেরিয়ে আসেন।

ফাঁসি কার্যকরের সব প্রস্তুতি থাকলেও বিধান অনুসারে এটি আসামিদের সঙ্গে স্বজনদের ‘শেষ সাক্ষাৎ’ কি না, তা জানাননি এই কারা কর্মকর্তা।

এর আগে, ১ এপ্রিল মঙ্গলবার এক বার্তায় এ মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মুফতি হান্নান ও তার সহযোগী শরীফ শাহেদুল ওরফে বিপুলের স্বজনদের ডেকেছেন গাজীপুরের কাশিমপুর কারা কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত, সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা ও তিনজন নিহতের ঘটনায় করা মামলায় মুফতি হান্নান, শরিফ শাহেদুল ও রিপনের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। ফেব্রুয়ারি মাসে রিভিউ আবেদন করেন তারা।

১৯ মার্চ রোববার রায়ের পুনর্বিবেচনা চেয়ে মুফতি হান্নানের রিভিউ আবেদন খারিজ করে দেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ। ২১ মার্চ মঙ্গলবার সুপ্রিমকোর্টের ওয়েবসাইটে এ রায় প্রকাশিত হয়।

রায় প্রকাশের পর রাষ্ট্রপতির কাছে মুফতি হান্নান, শরিফ শাহেদুল ও রিপন প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করলে তিনি তা নাকচ করে দেন।

এদিকে, ৯ এপ্রিল রোববার সচিবালয়ে নিজ দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানান, গ্রেনেড হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জঙ্গিনেতা মুফতি হান্নানের ফাঁসি কার্যকরে কারাগার প্রস্তুতি নিচ্ছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*