জাতিসংঘের সর্বকনিষ্ঠ শান্তিদূত হচ্ছেন মালালা


malala

জাতিসংঘের সর্বকনিষ্ঠ শান্তিদূত হিসেবে নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন শান্তিতে নোবেল বিজয়ী পাকিস্তানি তরুণী মালালা ইউসুফজাই। ৮ এপ্রিল শুক্রবার জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টনিও গুতারেস এক ঘোষণার মাধ্যমে পাকিস্তানের নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাইকে এ সম্মাননার কথা জানান।

আগামীকাল ১০ এপ্রিল সোমবার ১৯ বছর বয়সী তরুণী মালালাকে শান্তিদূত হিসেবে নিয়োগ দেবেন জাতিসংঘের মহাসচিব গুতেরেস। এ পদে বহাল হয়ে বিশ্বজুড়ে নারীশিক্ষা প্রচারে আরও জোরালো ভূমিকা রাখবেন তিনি।

তার সম্পর্কে গুতেরেস এক বিবৃতিতে বলেন, ‘মৃত্যুর ঝুঁকির মুখেও মালালা নারী, মেয়েশিশু ও সব মানুষের অধিকারের অঙ্গীকারে অবিচল থেকেছেন। নারীশিক্ষার জন্য তার সাহসী কর্মকাণ্ড এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে অনেক মানুষকে অনুপ্রাণিত করেছে। এখন আমাদের সর্বকনিষ্ঠ শান্তিদূত হিসেবে তিনি এ বিষয়ে তো বটেই, শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গঠনেও আরও বেশি ভূমিকা রাখবেন।’

২০১২ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানের মিঙ্গোরা এলাকায় বাসে করে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে তালেবান জঙ্গিদের হামলার শিকার হন নারী শিক্ষা আন্দোলনের কর্মী মালালা। এরপর চিকিৎসার জন্য তাকে যুক্তরাজ্যে পাঠানো হয়। সুস্থ হয়ে এখন সেখানেই পড়াশোনা করছেন তিনি। এরপর তিনি উন্নয়নশীল দেশগুলোয় নারী শিক্ষা প্রকল্পে সহায়তা দিতে গড়ে তোলেন মালালা ফান্ড।

নারী শিক্ষা আন্দোলনের প্রতীক হয়ে ওঠা এই তরুণী ২০১৪ সালে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান।