সাকিব বিহীন কলকাতার দাপুটে জয়


গৌতম গম্ভীর ও ক্রিস লিন। ছবি: বিসিসিআই 

 

সুরেশ রায়নার অপরাজিত ৬৮ রানের ইনিংসে ভর করে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে বড় লক্ষ্যই ছুঁড়ে দিয়েছিলো গুজরাট লায়ন্স। কিন্তু গুজরাটকে পাত্তাই দিলেন না কলকাতার দুই ওপেনার গৌতম গম্ভীর ও ক্রিস লিন। তাদের ব্যাটিং ঝড়ে ইতিহাস গড়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) দশম আসরে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিয়েছে কলকাতা।

শুক্রবার রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয় গুজরাট ও কলকাতা।ঘরের মাঠে টস হেরে আগে ব্যাট করে নির্ধারত ২০ ওভারে চার উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রানের দলীয় সংগ্রহ পায় গুজরাট। জবাবে ব্যাট করতে নেমে গুজরাটের বোলারদের পাড়ার বোলার বানিয়ে ছেড়েছে গম্ভীর-লিন জুটি। কোনো উইকেট না হারিয়েই ৩১ বল হাতে রেখে টুর্নামেন্টের এবারের আসরে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নেয় বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের দলটি।

এদিন ১৮৪ রানের লক্ষ্য করতে নেমে শুরু থেকেই গুজরাটের বোলারদের উপর চড়াও হন গম্ভীর ও লিন। তাদের ব্যাটিং ঝড়ে প্রথম ছয় ওভারেই আসে ৭৩ রান। ১৯ বলে চারটি চার ও পাঁচ হয়ে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন লিন। এরপর ৪৬ বলেই (৭.৪ ওভার) ১০০ রানের দলীয় সংগ্রহ পায় কলকাতা। লিনের পর ৩৩ বলে চারটি চারে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন গম্ভীরও।

শেষ পর্যন্ত তাদের এই জুটিতে কোনো ভাঙনই ধরাতে পারেননি গুজরাটের বোলাররা। ৪১ বলে ছয় চার ও আট ছয়ে ৯৩ রান করে অপরাজিত থাকেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিস লিন। এছাড়া ৪৮ বলে ১২ চারের সৌজন্যে ৭৬ রনের অপরাজিত ইনিংস খেলেন কলকাতার অধিনায়ক গম্ভীর। ফলে ১৪.৫ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় দুইবারের শিরোপাজয়ীরা। শুধু আইপিএল কেন, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে এত বেশি রান তাড়া করে ১০ উইকেটে জয়ের রেকর্ড এটাই প্রথম।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় গুজরাট। দলীয় ২২ রানেই ফিরে যান ওপেনার জেসন রয়। ব্যক্তিগত ১৪ রান করে পিযুস চাওলার বলে ইউসুফ পাঠানের তালুবন্দী হন তিনি। তবে দ্বিতীয় উইকেটে ৫০ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় সংগ্রহের পথ দেখান ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ও অধিনায়ক রায়না। ম্যাককালামকে ব্যক্তিগত ৩৫ রানে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন কুলদ্বীপ যাদব।

ম্যাককালাম ফিরে গেলেও রায়নার অপরাজিত ৬৮ রানে ভর করে চার উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রানের লড়াকু সংগ্রহ পায় গুজরাট। ৫১ বলে সাত চারে ৬৮ রান করেন এই ভারতীয়। এছাড়া ২৫ বলে দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেন দিনেশ কার্তিক। অ্যারন ফিঞ্চের ব্যাট থেকে আসে ১৫ রান।

কলকাতার পক্ষে সর্বোচ্চ দু’টি উইকেট নিয়েছেন কুলদ্বীপ যাদব। এছাড়া পিযুস চাওলা ও ট্রেন্ট বোল্ট নিয়েছেন একটি করে উইকেট।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*