দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট গ্রেফতার


পার্ক গিউন-হে

 

প্রেসিডেন্ট থাকাকালে দুর্নীতির কেলেঙ্কারির এক ঘটনায় দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন-হেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারের পর তাঁকে কারাগারে নেওয়া হয়েছে। খবর বিবিসির।

গিউন-হে গতকাল বৃহস্পতিবার আদালতে হাজিরা দেন। দুর্নীতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা উচিত হবে কি না, তা নিয়ে শুনানি হয়। শুনানি শেষে তাঁর গ্রেফতার অনুমোদন করেন আদালত। এরপর তাঁকে একটি ডিটেনশন সেন্টারে নেওয়া হয়।

গিউন-হের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণ, সরকারি তথ্য ফাঁস, ক্ষমতার অপব্যবহারসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ আছে। অবশ্য এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন তিনি।

গিউন-হেকে সম্প্রতি দেশটির সাংবিধানিক আদালত বরখাস্ত করেন। দুর্নীতির কেলেঙ্কারির জেরে পার্লামেন্টে অভিশংসন প্রস্তাব পাস হওয়ার পর দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত ওই রায় দেন।

প্রেসিডেন্ট থাকাকালে বিচার থেকে দায়মুক্তির আওতায় ছিলেন গিউন-হে। কিন্তু আদালতের রায়ে বরখাস্ত হওয়ার পর দায়মুক্তির সুবিধা হারান তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত করার পথ প্রশস্ত হয়।

দুর্নীতির অভিযোগে গত বছরের ডিসেম্বরে দক্ষিণ কোরিয়ার পার্লামেন্ট প্রেসিডেন্টের পদ থেকে গিউন-হেকে অভিশংসনের পক্ষে রায় দেয়। তার আগে দেশটির লাখো মানুষ গিউন-হের পদত্যাগের দাবিতে রাস্তায় রাস্তায় বিক্ষোভ করেন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*