অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ভারতের সিরিজ জয়


 

প্রথম ম্যাচ অস্ট্রেলিয়া জিতলেও শেষ পর্যন্ত ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে টিম ইন্ডিয়া। চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজের শেষ ম্যাচ একদিন হাতে রেখেই আট উইকেটে জিতে নিয়ে সিরিজটি নিজেদের করে নিল স্বাগতিক ভারত।

ধর্মশালা টেস্টে চতুর্থ ইনিংসে ভারতের জয়ের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র ১০৬ রান। সহজ লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে ম্যাচের তৃতীয় দিন কোন উইকেট না হারিয়ে ১৯ রানে শেষ করে লোকেশ রাহুল (১৩) ও মুরলি বিজয় (৬)। চতুর্থ দিন মাত্র দুই উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌছে যায় স্বাগতিকরা।

চতুর্থ দিন ব্যাটিংয়ে নেমে ৮৬ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বেশ ভালোই খেলছিলেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান। তবে রাহুল ব্যাট চালিয়ে গেলেও মাত্র আট রানে আউট হন বিজয়। ফাস্ট বোলার প্যাট কামিন্সের বলে ক্যাচ নেন ম্যাথু ওয়েডের কাছে। এরপরে ব্যাট হাতে চেতেশ্বর পূজারা যোগ করতে পারেননি এক রানও।

গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের ছোড়া বলে রান আউট হয়ে ফিরে যান শূন্য রানে। তবে এরপরে আর কোন উইকেট হারাতে হয়নি ভারতকে। রাহুল একাই দলকে টেনে নিয়ে যান জয়ের দুয়ারে। তার করা ৭৬ বলে হাফসেঞ্চুরিতে ম্যাচ ও সিরিজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো ভারত। রাহুলকে বেশ ভালোভাবেই সঙ্গ দিয়েছেন আজিঙ্কা রাহানে। অপরাজিত ৩৮ রানের একটি মূল্যবান ইনিংস খেলেছেন ভারপ্রাপ্ত এই অধিনায়ক।

প্রথম ইনিংসে ভারত মাত্র ৩২ রানের লিড নেওয়ার পরে বোঝা যাচ্ছিলো ম্যাচ অনেকটাই অস্ট্রেলিয়ার হাতে। কিন্তু সেই ৩২ রানই  শেষ পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠে এইটেস্টে। দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৩৭ রানেই গুটিয়ে যায় স্টিভেন স্মিথরা। অধিনায়ক স্মিথ সেঞ্চুরি করলেও আর কোন অজি ব্যাটসম্যান তাকে যোগ্য সঙ্গ দিতে পারেনি। অস্ট্রেলিয়ার চার উইকেট তুলে নেন অভিষেক হওয়া স্পিনার চায়নাম্যান খ্যাত কূলদীপ যাদব।

প্রথম ইনিংসে অজিদের ৩০০ রানের জবাবে জাদেজার দৃঢ়তায় ৩৩২ রানে অলআউট হয় বিরাট কোহলি বিহীন ভারত। এর আগে ছয় উইকেটে ২৪৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শেষ করে টিম ইন্ডিয়া। ৭ম উইকেটে ঋদ্ধিমান সাহা (৩০) এবং রবিন্দ্র জাদেজা (৬৩) গড়েন ৯৬ রানের জুটি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬০ রান ছিল রাহুলের। ভারতের প্রথম ইনিংসের অপর হাফ সেঞ্চুরিয়ান হলেন চেতেশ্বর পুজারা (৫৭)। স্পিনার নাথান লিওন ৩৪.১ ওভার বল করে পাঁচ মেডেনসহ ৯২ রানে তুলে নেন পাঁচ উইকেট। এছাড়া তিন উইকেট নিয়েছেন কামিন্স।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অজিরা ১০ রানেই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের (৮) উইকেট হারায়। এরপর আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি তারা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫ রান করে অপরাজিত উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ওয়েড। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ এদিন ১৮ রান করে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ঘূর্ণির শিকার হন। তিনটি করে উইকেট পেয়েছেন অশ্বিন, জাদেজা ও উমেশ যাদব।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন জাদেজা। ম্যান অব দ্য সিরিজের পুরস্কার উঠেছে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্মিথের হাতে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*