রিয়ালের ত্রাতা এবার নাচো ফার্নান্দেজ


2E13EC1700000578-0

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মঙ্গলবার প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি) মুখোমুখি হয় রিয়াল। নিজেদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্ণ‍াবুতে আতিথ্য দিয়েছিল রাফায়েল বেনিতেজের দল। আর শেষ পর্যন্ত ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। তবে এদিন আলো ছড়াতে ব্যর্থ হন রোনালদো-রদ্রিগেজরা। বরং দারুণ এক গোল করে রিয়ালের ত্রাতার ভুমিকায় অবতীর্ণ হন নাচো ফার্নান্দেজ।

প্রথম লেগের ম্যাচে পিএসজির মাঠ থেকে ড্র নিয়ে ফিরেছিল রিয়াল। তবে এদিন নিজেদের মাঠে স্বাভাবিকভাবেই ফেবারিটের তকমাটা গায়ে মাখানো ছিল বেনিতেজের শিষ্যদের। তবে শুরু থেকেই নিজেদের সেরাটা খেলে যায় দুই দল। দুই দলের দুই অভিজ্ঞ কোচই ৪-৩-৩ ফরম্যাটে খেলা শুরু করেন।

তবে সফরকারীদের বিপক্ষে প্রথমে এগিয়ে যায় রিয়াল। প্রথমার্ধের ৩৫ মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন নাচো। অথচ এর কয়েক মিনিট আগেই বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নামেন তিনি।রিয়ালের ব্রাজিলিয়ান তারকা মার্সেলোর বদলি হিসেবে নামেন নাচো।

পিছিয়ে পড়ে পিএসজি যেন গোল করতে মরিয়া হয়ে উঠে। দারুণ কয়েকটি গোলের সুযোগও পায় তারা। কিন্তু সফরকারীদের বেশ কয়েকটি প্রচেষ্টা অসাধারণ দক্ষতায় রুখে দেন রিয়ালের গোলরক্ষক নাভাস। এর ফলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

কিন্তু ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও আর কোন দল গোলের কোন সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। রিয়ালের রোনালদো কিংবা রদ্রিগেজরা এদিন সেভাবে নিজেদেরকে মেলে ধরতে পারেননি। নিজেদের ঝলক দেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন ইব্রাহিমোভিচ এবং কাভানিরাও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিস্প্রভই থাকে দুই দলের সেরা তারকারা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এই ম্যাচ দিয়েই দীর্ঘদিন পর আবারও সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ফিরে আসেন আর্জেন্টাইন তারকা ডি মারিয়া। যে কারণে সবারই অতিরিক্ত নজর ছিল তার দিকে। নিজের প্রিয় ক্লাবের বিপক্ষে মাঝমাঠে বেশ কিছু ঝলক ঠিকই দেখিয়েছেন ডি মারিয়া। কিন্তু তাতে দলকে গোল এনে দিতে পারেননি তিনি। এর ফলে পরাজয়ের স্বাদ নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় লরা ব্ল্যাঙ্কের শিষ্যদেরকে।

এই জয়ের ফলে রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট সর্বোচ্চ ১০। ‘এ’ গ্রুপে সবার উপরেই অবস্থান তাদের। ৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে অবস্থান করছে পিএসজি।