ভারতে সংক্রমণ ৬৫ কোটি ছাড়াতে পারে ফেব্রুয়ারিতে


 

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যে ভারতের ১৩০ কোটি জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকই নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে। করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় দেশটির সরকারের গঠিত কমিটির এক সদস্য সোমবার এই পূর্বাভাস দিয়েছেন।

মহামারি করোনায় ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রের পরই আছে ভারত।

ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সের পরিসংখ্যান বলছে, ভারতে করোনাভাইরাস মহামারি চূড়ায় পৌঁছেছিল সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ের দিকে। সেই সময় দৈনিক সংক্রমণ লাখের কাছাকাছি ছিল। তবে বর্তমানে দেশটিতে করোনা সংক্রমণ কমে এসেছে; দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ৬০ হাজারের আশপাশে রয়েছে।

ভারত সরকারের করোনা টাস্ক ফোর্সের সদস্য এবং ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট ফর টেকনোলজির অধ্যাপক মনীন্দ্র আগারওয়াল বলেন, আমাদের গাণিতিক মডেলের পূর্বানুমান অনুযায়ী- বর্তমানে দেশের প্রায় ৩০ শতাংশ জনগোষ্ঠী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আগামী ফেব্রুয়ারিতে এই সংখ্যা ৫০ শতাংশ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

এর আগে গত সেপ্টেম্বরে ভারতের সরকারি সেরোলজিক্যাল এক জরিপে দেশটির প্রায় ১৪ শতাংশ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানানো হয়। কিন্তু সরকারের করোনা টাস্ক ফোর্সের বর্তমান পূর্বানুমান গত সেপ্টেম্বরের জরিপের পূর্বাভাসের চেয়ে অনেক বেশি।

সামাজিক দূরত্ব এবং মাস্ক পরার নির্দেশ উপেক্ষা করা হলে আগামী কিছুদিনের মধ্যে ভারতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা মাসে ২৬ লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে সরকারি কমিটি। পূর্ব সতর্কতা অবলম্বন না করা হলে করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতি বিশেষজ্ঞ কমিটির পূর্বানুমানের চেয়েও বেশি হতে পারে।