ট্রাম্পকে আবারও একহাত নিলেন জাসিন্ডা


নিউ জিল্যান্ডে নতুন করে করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের করা মন্তব্যের আবারও সমালোচনা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডেন। তিনি বলেছেন, কেবল আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিয়ে কোনও দেশের করোনা মোকাবিলার ভূমিকা বিশ্লেষণ করা যায় না, সামগ্রিকভাবে এই মহামারি কিভাবে মোকাবিলা করা হয়েছে তা দেখা উচিত। শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে জাসিন্ডা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) বক্তব্য উদ্ধৃত করে বলেন, সারা বিশ্বেই করোনা পরীক্ষার হার নিউ জিল্যান্ডেরই বেশি একই সঙ্গে দেশটির মৃত্যুহারও সবচেয়ে কম। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রায় ১০২ দিন নতুন করে কোনও আক্রান্ত না থাকার পর গত ১১ আগস্ট নিউ জিল্যান্ডে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে নতুন ৮৭ জনের শরীরে এই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে নতুন এই সংক্রমণ নিয়ে গত সপ্তাহ জুড়ে সমালোচনা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত সপ্তাহে ট্রাম্পের এসব সমালোচনাকে ভুল আখ্যা দেন জাসিন্ডা আর্ডেন। শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে আবারও এই প্রসঙ্গে কথা বলেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে নিউ জিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডেন বলেন, ‘আমার মনে হয় সবাই দেখতে পাচ্ছে যে আজ আমরা নিউ জিল্যান্ডে ১১ জন আক্রান্ত নিয়ে কথা বলছি, যেখানে যুক্তরাষ্ট্রকে ৪০ হাজারের বেশি আক্রান্তের ঘটনা সামলাতে হচ্ছে।’ ‘কিন্তু এটা কেবল কতজন আক্রান্ত আছে সেটাই বিষয় নয়, বরং জাতি হিসেবে কিভাবে তা মোকাবিলা করা হয়েছে সেটাই বিষয়। আর নিউ জিল্যান্ডের বাসিন্দারা কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে যেভাবে লড়াই করেছে তাতে আমি ব্যক্তিগত ভাবে খুবই গর্বিত,’ বলেন তিনি।

নিজের বক্তব্যে ট্রাম্পের নাম উল্লেখ না করেও জাসিন্ডা আর্ডেন নিউ জিল্যান্ডের সাফল্য তুলে ধরতে সরাসরি মার্কিন পরিসংখ্যানের সঙ্গে তুলনা করেন। তিনি বলেন, ‘কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা এখনও কম থাকা অল্প কয়েকটি দেশের একটি নিউ জিল্যান্ড আর একই সঙ্গে সর্বনিম্ন মৃত্যুহারেরও দেশ। শুধু একটা উদাহরণ দেই, যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি দশ লাখ মানুষের মধ্যে আক্রান্ত ১৬ হাজার ৫৬৩ জন। আর সেখানে আমাদের দেশে প্রতি দশ লাখে আক্রান্ত মাত্র ২৬৯ জন।’

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী প্রতি দশ লাখে নিউ জিল্যান্ডে করোনায় মৃত্যু হার ০.৪৫ আর যুক্তরাষ্ট্রে এর পরিমাণ ৫৩.০৪।