মালিঙ্গায় মুক্তি সাকিবের


নিষেধাজ্ঞার কারণে ক্রিকেট মাঠ থেকে দূরে থাকলে কী হবে, ক্রিকেট আলোচনায় সাকিব আল হাসান থাকছেনই। উইজডেন অ্যালমানাক, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আর ক্রিকইনফোর দশকসেরা ওয়ানডে একাদশে জায়গা করে নিয়েছেন কয়েকদিন আগে। এবার একটি রেকর্ড হাতছাড়া হলো সাকিবের। রেকর্ডটা অবশ্য লজ্জার।

এতদিন টি-টোয়েন্টি অধিনায়কদের মধ্যে সবচেয়ে কম জয়ের হার ছিল সাকিবের, ৩৩.৩%। শুক্রবার রাতে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে ভারতের কাছে ৭৮ রানে বিধ্বস্ত হওয়ার পর রেকর্ডটা লাসিথ মালিঙ্গার দখলে। শ্রীলঙ্কান অধিনায়কের জয়ের হার এখন ৩১.৮%। এই তালিকায় সেরা পাঁচে থাকা বাকি তিন জনের দু্জনই বাংলাদেশের, মুশফিকুর রহিম (৩৪.৮%) ও মাশরাফি মুর্তজা (৩৫.৭%)। পঞ্চম স্থানে আছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের কার্লোস ব্র্যাথওয়েট (৩৬.৭%)। হিসেবটা কমপক্ষে ২০ ম্যাচের অধিনায়কদের।

শুধু নেতৃত্বের লজ্জার রেকর্ড গড়েননি, সদ্যসমাপ্ত সিরিজে বল হাতেও ব্যর্থ মালিঙ্গা। প্রথম ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে বৃষ্টিতে। বাকি দুই ম্যাচে একটি উইকেটও পাননি। এর মধ্যে দ্বিতীয় ম্যাচে দিয়েছেন ৪১ রান, শেষ ম্যাচে ৪০।

দুই ম্যাচে একদমই লড়াই করতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। দলের ব্যর্থতার দায় নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন মালিঙ্গা, ‘দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার আমি। অথচ একটি উইকেটও পাইনি, ভালো খেলতে পারিনি। ২-০তে সিরিজ হারের এটা অন্যতম কারণ। আসলে জিততে হলে প্রথম ছয় ওভারে দু-একটি উইকেট নিতেই হতো, যা আমরা এই সিরিজে করতে পারিনি।’