সৌম্যর ব্যাটে কুমিল্লার জয়


সিলেট ঘুরে ঢাকায় এসেও জয়ের দেখা পেলো না সিলেট থান্ডার। নিজেদের শেষ ম্যাচে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের কাছে ৫ উইকেটে হেরেছে আগেই বিপিএল থেকে ছিটকে পড়া সিলেট। ৫ বল হাতে রেখে জয় পাওয়া কুমিল্লা শেষ চারের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ১৪২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নামা কুমিল্লার শুরুটা ছিল হতাশার। ১০ রানের মাঝে ফিরে গেছেন ফারদিন হাসান ও উপুল থারাঙ্গা। এর পরেই হাল ধরেছেন কুমিল্লা অধিনায়ক ডেভিড মালান। মাঝে মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন ১১ রান করে ফিরলেও আগ্রাসী ছিলেন মালান। জয়ের মঞ্চ গড়েছেন সৌম্য সরকারের সঙ্গে ৭২ রানে জুটি গড়ে। ৪৯ বলে ৫৮ রান করে মালান ফিরেছেন ইবাদত হোসেনের বলে ক্যাচ দিয়ে।
তার বিদায়ের পর কুমিল্লা জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলেছে সৌম্য সরকারের ৩০ বলে ৫৩ রানের ঝড়ো ইনিংসে ভর করে। তবে ম্যাচসেরা হয়েছেন মালান।

১০ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে আছে কুমিল্লা। এক ম্যাচ কম খেলে ১০ পয়েন্ট নিয়ে তাদের ঠিক ওপরে খুলনা টাইগার্স। সবার নিচে থাকা সিলেট ১২ ম্যাচে একটি জয় এবারের মতো বিদায় জানিয়েছে বিপিএলকে।
টস হেরে ব্যাট করতে নেমে বড় স্কোর গড়তে পারেনি সিলেট, ৫ উইকেটে করেছে ১৪১ রান। শুরুতে আন্দ্রে ফ্লেচার ঝড় তোলার চেষ্টা করেও পারেননি, ২৫ বলে ২২ রান করে ফিরে এসেছেন।

সর্বোচ্চ রান আব্দুল মজিদের, ৪০ বলে ৪৫। জনসন চার্লস ১৫ বলে ২৬ রান করে আউট হয়েছেন আল আমিনের বলে। জীবন মেন্ডিসও আক্রমণের ইঙ্গিত দিয়ে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। ১১ বলে ২৩ রান করা শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন ডেভিড ভিসে।

কুমিল্লার হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন আল আমিন ও ভিসে।