ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান গুঁড়িয়ে দেওয়ার হুঁশিয়ারি পুতিনের


 ভ্লাদিমির পুতিন (বামে), বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু (ডানে)। ছবি: সংগৃহীত

 

সম্প্রতি সিরিয়ায় একের পর এক বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল। কৌশলগত নানা কারণে সেসব হামলার পাল্টা জবাব দেয়নি দেশটির মিত্রপক্ষ রাশিয়া। কিন্তু আবারও সেখানে হামলা চালালে ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে বলে কড়া হুঁশিয়ারি জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

গত বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাশিয়ার সোচি শহরে সিরিয়ার ‘সুরক্ষা সমন্বয়’ বিষয়ে পুতিন ও নেতানিয়াহুর বৈঠকের পর এ হুঁশিয়ারির খবর দিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে সতর্ক করে দিয়ে পুতিন বলেন, সিরিয়ার সামরিক স্থাপনায় ইসরায়েলি হামলা মেনে নেওয়া মানে মস্কো ও দামেস্কের বন্ধুত্বকে হেয় করা।

সিরিয়ায় ইসরায়েলের যে কোনো রকম বিমান হামলা ঠেকাতে রাশিয়া নিজেদের যুদ্ধবিমান অথবা এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ব্যবহারেরও হুমকি দেয় বলে প্রতিবেদনে বলা হয়।

এর আগে গত মাসে দামেস্কের নিকটবর্তী কৌশলগত এলাকা কাসিওনে ইসরায়েলি একটি বিমান হামলা ঠেকিয়ে দেয় মস্কো। সেখানে সিরিয়ার একটি এস-৩০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যাটারি বসানো রয়েছে। পরে সিরিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কুনেইতরা প্রদেশের একটি ফাঁড়ি ও পশ্চিম উপকূলীয় লাতাকিয়া প্রদেশে আরও দু’টি বিমান হামলা ঠেকানো হয়।

গত মাসে সিরিয়া ইসরায়েলের বেশ কিছু ক্ষেপণাস্ত্র হামলা প্রতিহত করে। অন্যদিকে তেলআবিবের ক্রমাগত আগ্রাসী আচরণ সত্ত্বেও রাশিয়া প্রতিশ্রুত ভূমিকা না রাখায় দামেস্ক মস্কোর ব্যাপারে সংশয়ী হয়ে উঠছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিভিন্ন সময় ইসরায়েল সিরিয়ায় হামলা চালিয়েছে বলে জানান দিয়েছে। এসব হামলার কিছু কিছু লেবাননের আকাশসীমা থেকেও চালানো হয়। ইসরায়েলের বিরুদ্ধে লেবাননেরও আকাশসীমা লঙ্ঘনের অভিযোগ রয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সিরিয়া ইস্যুতে পুতিনের সঙ্গে নেতানিয়াহুর সর্বশেষ সাক্ষাৎ ‘ব্যর্থতায়’ পর্যবসিত হয়েছে। এতে সিরিয়ার ব্যাপারে তেলআবিব ও মস্কোর মতানৈক্য নিরসনে কোনো সাফল্য আসেনি।