সশস্ত্র বাহিনীকে বিশ্বমানে উন্নয়নে কাজ চলছে : প্রধানমন্ত্রী


 

বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করতে সরকার নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রেসিডেন্ট গার্ডস রেজিমেন্টের (পিজিআর) ৪৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল বুধবার ঢাকা সেনানিবাসে রেজিমেন্ট সদর দপ্তরে শুভেচ্ছা বক্তব্যে তিনি সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়নে তার সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা স্বাধীন দেশ। স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব রক্ষার দায়িত্ব আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর। কাজেই স্বাভাবিকভাবে একটা স্বাধীন দেশের উপযুক্ত এই সশস্ত্র বাহিনীর, যা জাতির পিতা নিজে যুদ্ধের পর গড়ে তুলেছিলেন, সেটা আরও উন্নতমানের ও আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন করে গড়ে তোলার প্রচেষ্টা সবসময় আমাদের রয়েছে। পিজিআর সদস্যদের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই রেজিমেন্টের সদস্যরা অত্যন্ত সাহস, আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। আপনাদের সততা, একনিষ্ঠতা এবং দেশপ্রেম সত্যিই মানুষকে উদ্বুদ্ধ করে।

এর আগে দুপুরে রেজিমেন্ট সদর দপ্তরে পৌঁছে একদল চৌকষ গার্ডের অভিবাদন গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রানমন্ত্রী রেজিমেন্ট সদর দপ্তরে একটি গাছের চারা রোপণ করেন। রেজিমেন্টের যেসব সদস্য দায়িত্ব পালনের সময় মারা গেছেন প্রধানমন্ত্রী সেসব শহীদের পরিবারের সদস্যদের উপহার ও অনুদান দেন।

রেলসেতু সংস্কার ও রেলপথের আধুনিকায়নে জোর পরপর কয়েকটি ট্রেন দুর্ঘটনার পর পুরনো রেলসেতু সংস্কার, রেলপথের আধুনিকায়ন ও লোকবলের প্রশিক্ষণের ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বেনাপোল-ঢাকা রুটে নতুন ট্রেন এবং ঢাকা-রাজশাহী বনলতা এঙপ্রেস ট্রেনের রুট চাপাইনবাবগঞ্জ পর্যন্ত বর্ধিতকরণের উদ্বোধনীতে বিষয়টি নিয়ে তিনি কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দ্রুতগতির ট্রেন চলাচলের জন্য উপযোগী করে পুরনো রেলসেতু সংস্কার ও রেলপথগুলোর আধুনিকায়ন করতে হবে। পাশাপাশি আধুনিক রেল ইঞ্জিন চালনায় দক্ষ জনবল তৈরির জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।