মাদক নেয়া হেলস বাদ পড়লেন ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ দল থেকে


ডোপ টেস্টে দ্বিতীয়বারের মতো পজিটিভ হওয়ায় ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) আইনে ২১ দিনের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন অ্যালেক্স হেলস। তবে বিশ্বকাপ শুরু হতে বাকি আরও এক মাসের মতো। দলে থাকায় এই ওপেনারের খেলার সম্ভাবনা ছিল।

কিন্তু তার আগেই কঠোর এক সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলল ইসিবি। ইংল্যান্ডের ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ দেয়া হয়েছে অ্যালেক্স হেলসকে।

ইসিবি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বোর্ডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যাশলে জাইলস এবং নির্বাচক কমিটির প্রধান এড স্মিথ মিলে এই সিদ্ধান্তটা নিয়েছেন।

দলের শৃঙ্খলাকে এই বিষয়ে বিবেচনায় আনা হয়েছে উল্লেখ করে ইসিবি বিবৃতিতে লিখেছে, ‘দলের মধ্যে সঠিক পরিবেশ তৈরি করার কথা বিবেচনায় নিয়েছি আমরা। নিশ্চিত করেছি যাতে অনাকাঙ্খিত কোনো কিছু না ঘটে। এই দলটা যাতে সবচেয়ে ভালো অবস্থায় থেকে গুরুত্বপূর্ণ এই সময়টায় সাফল্যের জন্য ছুটতে পারে।’

২১ দিনের নিষেধাজ্ঞা পাওয়ায় হেলস এমনিতেও আয়ারল্যান্ড এবং পাকিস্তান সফরে খেলতে পারতেন না। জাইলস বলেন, ‘এই সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য আমাদের দীর্ঘসময় কঠিনভাবে ভাবতে হয়েছে। তবে ইংল্যান্ড দলে সঠিক পরিবেশটা তৈরির জন্য আমাদরে কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে। দলের জন্য সেরা সিদ্ধান্তটাই আমাদের নিতে হতো। যাতে মাঠে সফলভাবে খেলা যায়।’

হেলসের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ নতুন কিছু নয়। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে ব্রিস্টলে নাইটক্লাবের সামনে মারামারির ঘটনায়ও তার নামটি এসেছিল।