মজুরি বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিলেন ম্যাখোঁ


ফ্রান্সে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি এবং আরও কয়েকটি ইস্যুতে ব্যাপক গণবিক্ষোভে চাপের মুখে পড়েছে সরকার। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁকোনো উপায় না দেখে শেষ পর্যন্ত আন্দোলনকারীদের দাবির কাছে নতি স্বীকার করেছেন। এ নিয়ে জাতির উদ্দেশে তিনি ভাষণ দিয়েছেন। ভাষণে নিম্ন আয়ের মানুষদের মজুরি বাড়ানোর পাশাপাশি করের বোঝা কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ম্যাখোঁ।

১০ ডিসেম্বর, সোমবার রাতে টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে ম্যাখোঁ বলেন, ‘সামাজিক ও অর্থনৈতিক খাতে জরুরি সংস্কারগুলো আনার ব্যাপারে ‘কঠোর পদক্ষেপ’ নেবে তার সরকার।’ পার্স টুডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এ ছাড়া ভাষণে ম্যাখোঁ দেশে শান্তি-শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য ‘প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা’ নেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন।

আন্দোলনকারীদের ক্ষোভের ন্যায্যতা স্বীকার করে ২০১৯ সাল থেকে মাসে সর্বনিম্ন মজুরি ১০০ ইউরো বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ম্যাখোঁ। এ ছাড়া অতিরিক্ত সময় কাজের ওপর কোনো কর বসানো হবে না বলেও জানান তিনি।

গত ১৭ নভেম্বর শুরু হয় এই বিপ্লব। আন্দোলনকারীরা ফ্রান্সজুড়ে রাস্তা অবরোধ শুরু করেন। পরে এই আন্দোলন পুঁজিবাদবিরোধী ‘হলুদ জ্যাকেট’ আন্দোলনে রূপ নেয়। এই আন্দোলন ছড়িয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এবং রাজনৈতিক দলমত নির্বিশেষে সব মানুষ এই বিক্ষোভে তাদের সমর্থন জুগিয়েছে। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ তার মেয়াদের প্রথম ১৮ মাসের মধ্যেই সবচেয়ে বড় ও অন্যতম ধারাবাহিক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়লেন।