মদ্রিচ এখন রামোসের সমান!


লুকা মদ্রিচের রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ার গুঞ্জনটা শুরু হয়েছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো জুভেন্টাসে যাওয়ার আগেই। রাশিয়া বিশ্বকাপে গোল্ডেন বলজয়ী এই ক্রোয়েট মিডফিল্ডারকে দলে ভেড়ানোর সবরকম চেষ্টা করেছে ইন্টার মিলান। কিন্তু ইতালিয়ান ক্লাবটির কোনো চেষ্টাই সফল হতে দেয়নি স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ।

শেষ পর্যন্ত বেতন বাড়িয়ে মদ্রিচকে রেখে দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। আর ক্লাবের সঙ্গে নতুন চুক্তিতে সম্মত হয়েছেন বিশ্বের এই সেরা মিডফিল্ডার। নতুন চুক্তিতে তার বেতন ও বোনাস দুটোই বাড়ছে।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা জানিয়েছে, রোনালদো ক্লাব ছাড়ায় বর্তমানে রিয়াল মাদ্রিদের সর্বোচ্চ বেতনধারী ফুটবলার গ্যারেথ বেল। ওয়েলস তারকার পরই রয়েছেন ক্লাবটির স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোস। নতুন চুক্তি সম্পন্ন হলে মদ্রিচ এখন থেকে অধিনায়ক সার্জিও রামোসের সমান পারিশ্রমিক পাবেন। নতুন এই চুক্তিতে মদ্রিচ বেশ খুশি।

রিয়াল মাদ্রিদের বেতন কাঠামো অনুযায়ী বর্তমানে তৃতীয় গ্রেডে পারিশ্রমিক পাচ্ছেন মদ্রিচ। এতদিন ধরে তিনি পারশ্রমিক হিসেবে বছরে সাড়ে ৬ মিলিয়ন ইউরো পেতেন। ইন্টার মিলান পারিশ্রমিক হিসেবে তাকে বছরে ১০ মিলিয়ন ইউরো প্রস্তাব করেছিল। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ তাকে ধরে রাখার জন্য দিতে যাচ্ছে ১১ মিলিয়ন ইউরো। শিগগিরই রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে নতুন এই চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার কথা রয়েছে মদ্রিচের।

মূলত মদ্রিচের অসাধারণ পারফরম্যান্সের পাশাপাশি সুদক্ষ নেতৃত্ব গুণেই ২০১৮ বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে ক্রোয়েশিয়া। শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে অপ্রতিরোধ্য ফ্রান্সের কাছে হার মানলেও ফুটবলপ্রেমীদের হৃদয় জয় করে নেয় মদ্রিচ-মানজুকিচরা। বিশ্বকাপের পর থেকেই লুকা মদ্রিচকে কেনার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করে ইউরোপের শীর্ষ সারির ক্লাবগুলো।

গত মাসে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে রোনালদোকে কিনে নেয় ইতালির ক্লাব জুভেন্টাস। শুধু সিআর সেভেনকে কিনে নিয়েই শান্ত থাকেনি সিরি’এ লিগ, লা লিগার আরেক তারকা লিওনেল মেসিকেও তারা টার্গেট করেছে। এই সময়ের মধ্যেই আবার রিয়াল মাদ্রিদের ক্রোয়েশিয়ান তারকা মদ্রিচের দিকে নজর দেয় ইন্টার মিলান।

রোনালদোকে ছেড়ে দিলেও মদ্রিচকে বার্নাব্যুতেই রেখে দিচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। তাই সাথে সাথে মদ্রিচের রিলিজ ক্লজ বাড়িয়ে ৭৫০ মিলিয়ন ইউরো করে দেওয়া হয়। অর্থাৎ রিলিজ ক্লজ বাবদ মদ্রিচকে কিনতে হলে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাত হাজার ৩৬৯ কোটি ৯৮ লাখ টাকা গুনতে হবে ইন্টার মিলানকে।