উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক পরীক্ষা কেন্দ্র ব্যবহারের অযোগ্য


উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্রটি আংশিক বিধ্বস্ত হওয়ার কারণে ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে বলে চীনের গবেষকরা দাবি করেছেন। বারংবার বিস্ফোরণ ঘটানোর ফলে কেন্দ্রটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

২৬ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি অনলাইনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে চীনের ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির বরাত দিয়ে এই তথ্য জানানো হয়।

২০০৬ সাল থেকে শুরু করে ছয়বার অস্ত্র পরীক্ষার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে উত্তর কোরিয়ার ‘পুঙ্গি-রি’ পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্রটি। গত বছর সেপ্টেম্বরেও এখানে পরীক্ষা হয়। এর পরপরই ওই এলাকায় ‘আফটারশক’ অনুভূত হয়। গবেষকরা ধারণা করছেন, বিস্ফোরণের ফলে পাহাড়ে বড় একটি ফাঁপা জায়গা তৈরি হয়ে পাহাড়টির ভেতরে কিছু অংশ ধ্বসে পড়েছে।

পুঙ্গি রি পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা কেন্দ্রটি উত্তর কোরিয়ার উত্তর-পূর্ব পাহাড়ি এলাকায় অবস্থিত। মানটলাপ নামের এক পাহাড়ের নিচে খোঁড়া টানেলে অস্ত্র পরীক্ষাগুলো করা হয়।

চীনের গবেষণা প্রতিবেদনের মূল বক্তব্যে বলা হয়, গত বছরের সেপ্টেম্বরে পাহাড়ের ভেতরের অংশ ধসে যাওয়ায় ওইসব টানেল অস্ত্র পরীক্ষার জন্য অযোগ্য হয়ে গেছে। ডিসেম্বরে আরও দুটি আফটারশক অনুভূত হয় সেখানে। তখন থেকেই ওই এলাকায় পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা কতটা নিরাপদ তা নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল।

গবেষণার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই এলাকায় ধস নামার ফলে এটা পরীক্ষা করে দেখা প্রয়োজন যে কোনো তেজস্ক্রিয় পদার্থ সেখান থেকে বের হয়ে আসছে কি না।

উল্লেখ্য যে, ইতোমধ্যেই উত্তর কোরিয়া তাদের পরমাণু অস্ত্র কমসূচি এবং ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ বন্ধ করে দিচ্ছে। শনিবার এসব কর্মসূচি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির নেতা কিম জং উন।