কাকার কণ্ঠে রোনালদোর গুণগান


প্রায় একই সময়ে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে যাত্রা শুরু করেছিলেন রিকার্ডো কাকা আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ২০০৯ সালে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার পর দীর্ঘ চার বছর খেলেছেন একত্রে। কিন্তু ২০১৩ সালে স্পেনের জায়ান্ট ক্লাব ছেড়ে সাবেক ক্লাব এসি মিলানে নতুন করে ঠিকানা গড়েন ব্রাজিলিয়ান প্লে-মেকার কাকা।

কিন্তু ঠিকানা বদল করেননি রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগীজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে থেকেই আলো ছড়িয়েছেন সিআর সেভেন। হয়েছেন বিশ্ব ফুটবলের উজ্জ্বলতম নক্ষত্র। অথচ, স্প্যানিশ লা লিগায় দীর্ঘ চারটি বছর একত্রে কাটানোর পরও কাকা কখনো ভাবতেই পারেননি যে, সেই রোনালদোই একদিন এতোদূর যাবেন!

এ প্রসঙ্গে স্প্যানিশ দৈনিক মার্কাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কাকা বলেন, ‘সে (রোনালদো) যে এতোদূর যাবে তা কখনো ভাবতেই পারিনি আমি। পাঁচটি ব্যালন ডি’অর জয়সহ রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে এতো এতো গোল, আপনি কেবল স্বপ্নই দেখতে পারেন; কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে সেই স্বপ্নগুলোকে খুব ভালোভাবে বাস্তবায়নের স্বপ্ন দেখাটা সত্যিই অসম্ভব ব্যাপার। তবে রোনালদো তা পেরেছে। মাদ্রিদের ক্লাবটিতেই থেকেছে সে। শুরুর কয়েক বছর পর রোনালদো ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে আলো ছড়িয়েছে। কিন্তু ক্লাব শিরোপা জিতছিল না। তবে এই মুহূর্তে সে দলকে শিরোপা জেতাতেও সহায়তা করছে।’

এরপরই রোনালদোর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন কাকা। ব্রাজিলিয়ান তারকা জানান, ‘ক্রিশ্চিয়ানো একজন অসাধারণ মাপের খেলোয়াড়। তার মতো খেলোয়াড়কে পেয়ে মাদ্রিদের খেলোয়াড়দের অবশ্যই গর্বিত হওয়া উচিত। তার সঙ্গে চার বছর খেলার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার। এখন আমি আমার ছেলেমেয়েদের বলতে পারবো যে, তাদের বাবা রোনালদোর মতো খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলেছে। রোনালদো সর্বকালের সেরা ফুটবলারদের একজন।’