এই বেলই হাজার কোটির সেই বেল!


২০১৩ সালে ১০১ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে গ্যারেথ বেলকে দলে ভেড়ায় রিয়াল মাদ্রিদ। বাংলাদেশি টাকায় তখন তার দাম ছিল এক হাজার ৩৬ কোটি টাকা! অর্থাৎ দলবদলের ইতিহাসে নেইমার-কোটিনহোদের আগে দামি ফুটবলারের তকমাটা গায়ে ছিল এই গ্যারেথ বেলের!

তবে টাকার হিসেবে লিওনেল মেসি কিংবা সতীর্থ ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকেও ছাড়িয়ে যাওয়া বেল সেই ফর্ম আর ধরে রাখতে পারেননি। এক সময়ের ইতিহাসের দামি ফুটবলারকে গত বছর খুঁজেই পাওয়া যায়নি! ইনজুরি আর ফর্মহীনতায় যেন একেবারেই হারিয়ে বসেছিলেন ওয়েলস তারকা।

দীর্ঘদিন পর আবারও স্প্যানিশ লা লিগায় ফিরেছেন বেল। রোববার সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে ম্যাচে দেখা যায় তার ঝলকও। মাত্র দুই মিনিটের ব্যবধানেই দুই গোল করে রীতিমতো চমকে দেন স্বাগতিক সমর্থকদের।

গত বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে ৩-১ ব্যবধানে জেতা লা লিগার সেই ম্যাচে সর্বশেষ গোল করেছিলেন বেল। তার প্রায় চার মাস পর লিগে প্রথম গোলের দেখা পেলেন ওয়েলসম্যান!

বেলের জোড়া গোলও সেল্টার বিপক্ষে জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না রিয়াল মাদ্রিদের। শেষ পর্যন্ত ড্র নিয়ে বাড়ি ফিরতে হয়েছে জিনেদিন জিদানের দলকে। এদিন নিষ্প্রভ ছিলেন দলের সেরা তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোও।

বেলের ধার হারানোর প্রভাবটা যে রিয়াল মাদ্রিদে বেশ ভালোভাবেই পড়েছে, তা আর নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। পয়েন্ট টেবিলের দিকে তাকালেই তা সুস্পষ্ট হয়ে উঠে।

মৌসুমের প্রথম অর্ধেকটা শেষ হয়ে গেলেও রিয়াল আছে চার নম্বরে। শীর্ষে থাকা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার চেয়ে ১৬ পয়েন্ট পিছিয়ে! লা লিগার শিরোপা যে রিয়ালের হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে, তা এই তথ্যটাই বলে দিচ্ছে।

তবে সেল্টার বিপক্ষে ড্র করা ম্যাচেও বেলের প্রাপ্তি ২০০তম গোলের মাইলফলক স্পর্শ। জিনেদিন জিদানের অধীনে লা লিগায় তার গোলসংখ্যা এখন ২০১।

লিগ শিরোপার আশা ছেড়ে দিলেও উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এখনও হট ফেভারিট রিয়াল। তবে শেষ ষোলোতেই অগ্নিপরীক্ষা বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। কেননা, সেই লড়াইয়ে যে তাদের প্রতিপক্ষ ফরাসি জায়ান্ট পিএসজি। তার ঠিক আগে বেলের ফর্মে ফেরাটা নিঃসন্দেহে জিনেদিন জিদানের আত্মবিশ্বাসকে বাড়িয়ে দেবে বহু গুণে।