জাতীয় লিগে খুলনার হ্যাটট্রিক শিরোপা


খুলনার জয়রথ এবারও থামাতে পারল না প্রতিপক্ষরা। এ নিয়ে টানা তিন বছর জাতীয় ক্রিকেট লিগের শিরোপা জিতল খুলনা বিভাগ। ঢাকা বিভাগকে হারিয়ে এই শিরোপা জিতেছে বিভাগের ক্রিকেট দলটি। বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) মাঠে ঢাকাকে ইনিংস ও ৪৯ রানের ব্যবধানে হারিয়ে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে সবমিলিয়ে ষষ্ঠবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হল তারা।

লিগের ১৯তম আসরের শুরু থেকেই চলতি মৌসুমে ব্যাট-বলে সবার চেয়ে এগিয়ে ছিল খুলনা। জাতীয় দলের একঝাঁক ক্রিকেটার নিয়ে শুরু করা খুলনা যেন হ্যাটট্রিক করতেই আটঘাট বেঁধে নেমেছিল। বিশেষ করে ঘরোয়া ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যান তুষার ইমরান বাড়তি আত্মবিশ্বাস দিচ্ছিলেন দলকে। পুরো দল দেখলে মনে হবে জাতীয় দল। কারণ এক মেহেদী হাসান ছাড়া বাকি সবাই কোন না কোন সময় বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

শুরুর দিকে জাতীয় দলের ম্যাচ থাকায় অনেকেই খেলতে পারেনি। সেটা শেষ হতেই আবারও খুলনার জার্সিতে মাঠে নেমেছিল সৌম্য-মিরাজরা। ডানহাতি এই স্পিনার ঢাকার বিপক্ষে একাই নিয়েছেন ১০ উইকেট। ফলাফল, ম্যাচ তো জিতেছেই খুলনা সঙ্গে সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কারটাও বাগিয়ে নিয়েছেন জাতীয় দলে নিজের অভিষেক টেস্ট সিরিজে রেকর্ড গড়া মিরাজ।

খুলনার বিপক্ষে ঢাকা টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নামে। কিন্তু উইকেটে দাঁড়াতেই পারেনি মিরাজের কারণে। সাত উইকেট নিয়ে একরকম ধস নামিয়েছেন তিনি, ১১৩ রানে গুটিয়ে গেছে ঢাকা। জবাবে খুলনার পক্ষে ওপেনার এনামুল হক বিজয় একাই ডাবল সেঞ্চুরি (২০২) হাঁকিয়েছেন। এছাড়া মেহেদী হাসান খেলেছেন ১৭৭ রানের অনবদ্য ইনিংস। সবমিলিয়ে প্রথম ইনিংস ৪৫৯ রান সংগ্রহ করেছে খুলনা। বল হাতে ঢাকার পেসার শাহাদাত হোসেন ও শুভাগত হোম তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন।

দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৪৬ রানে পিছিয়ে থেকে ব্যাটিং শুরু করে ঢাকার দল। এবারের সংগ্রহ ২৯৭। বল হাতে এবার তিনটি করে উইকেট নেন পেসার রুবেল হোসেন ও প্রথম ইনিংসে ধস নামানো মিরাজ। তাতে করে ইনিংস ও ৪৯ রানে পরাজিত হয় রকিবুল-শাহাদাতর। অন্যদিকে, জয়ের পাশাপাশি পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে যায় খুলনা। জিতে নেয় লিগের হ্যাটট্রিক শিরোপা। আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বাধীন খুলনা ছয় ম্যাচের দুইটিতে জয় ও চারটিতে ড্র করেছে। ঢাকা ড্র করেছে পাঁচ ম্যাচে। জয় একটিতে।