শীতকালীন অলিম্পিকে নিষিদ্ধ রাশিয়া


একের পর এক ডোপ কেলেঙ্কারির জন্ম দিয়ে গত কয়েক বছর ধরেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন রাশিয়ার এ্যাথলেটরা। সংশয়ে ছিল আসন্ন শীতাকালীন অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করতে পারবে কি না তা নিয়েও। অবশেষে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ২০১৮ সালের শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়াকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)।

তবে যারা ডোপিংয়ের সঙ্গে জড়িত নন তাদের জন্য রয়েছে স্বস্তির খবর। আইওসি জানিয়েছে, কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে অলিম্পিক পতাকার অধীনে শীতকালীন অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করতে পারবেন তারা।

আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে শীতকালীন অলিম্পিকের আসর। এবারের আয়োজক দেশ দক্ষিণ কোরিয়া। কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরুর প্রায় দুই মাস আগেই দুঃসংবাদটি শুনতে হলো রাশিয়ান এ্যাথলেটদের। খেলোয়াড়দের ডোপিং গ্রহণের অভিযোগকে কেন্দ্র করে ১৭ মাস ধরে চলা তদন্তের প্রতিবদেনে যে সব তথ্য ও সুপারিশ উঠে এসেছে তার প্রেক্ষিতেই আইওসির প্রেসিডেন্ট টমাস বাখ এবং তার বোর্ড মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে।

রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করার প্রসঙ্গে আইওসি’র সভাপতি টমাস বাখ বলেন, ‘অপকর্মের মাধ্যমে অলিম্পিক আসর ও খেলাটির শুদ্ধতায় নজিরবিহীন আক্রমণের জন্য রাশিয়াকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সিদ্ধান্তটা ডোপিংবিরোধী কার্যক্রমে ফলপ্রসূ ভূমিকা রাখবে।’

ওয়ার্ল্ড এ্যান্টি ডোপিং এ্যাজেন্সি এবং আইওসির দুটি তদন্ত প্রতিবেদনে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় রাশিয়ান এ্যাথলেটদের ডোপ পাপের প্রমাণ পাওয়া গেছে।