সেই ও’কিফকে উড়িয়ে আনছে অস্ট্রেলিয়া


steve-okeefe-193391808

সাইড স্ট্রেইনের চোট নিয়ে বাংলাদেশের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টের তৃতীয় দিন মাঠ ছাড়েন অস্ট্রেলিয়ান ডানহাতি পেসার জশ হ্যাজেলউড। পরবর্তীতে পরীক্ষানিরিক্ষার পর জানানো হয় বাংলাদেশের বিপক্ষে বাকি সিরিজসহ ভারত সফরেও খেলতে পারবেন না তিনি। হ্যাজলউডের পরিবর্তে শেষমেশ ৩২ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনার স্টিফেন ও’কিফকেই ডেকে পাঠিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। অথচ তাকে প্রথমে স্কোয়াডেই রাখা হয়নি।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ার ভারত সফরে পুনে টেস্টে ১২ উইকেট নিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন ও’কিফ। সিরিজে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের যেন ব্যাটিংই ভুলিয়ে দিয়েছিলেন। পুরো সিরিজে ১৯ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী ছিলেন এই বাঁ-হাতি স্পিনার।

কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বার্ষিক এক অনুষ্ঠানে মদ্যপ অবস্থায় উপস্থিত হওয়ায় তাকে সাময়িকভাবে দল থেকে দূরে রাখা হয়েছিল। ফলে স্বাভাবিকভাবেই বাংলাদেশ ও ভারত সফরে স্কোয়াডে জায়গা হয়নি তার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত উপমহাদেশের মাটিতে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে সেই ও’কিফের শরণাপন্নই হতে হলো অস্ট্রেলিয়া বোর্ডকে। অস্ট্রেলিয়া স্কোয়াডে আগে থেকেই তিন স্পিনার ছিলো। এবার তাদের সাথে যোগ হলো আরও একজন।

অস্ট্রেলিয়ার স্কোয়াডে বর্তমানে দুই পেসার প্যাট কামিন্স ও জ্যাকসন বার্ড তাদের কাজ ভালোভাবেই করে যাচ্ছেন। তাই পেসারের পরিবর্ততে পেসার না ভেবে স্পিনারের দিকে ঝুঁকেছেন জানিয়ে অস্ট্রেলিয়ার নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান ট্রেভর হন্স বলেন, ‘স্কোয়াডে জ্যাকসন বার্ড থাকায় আমরা দ্বিতীয় টেস্টের জন্য ফাস্ট বোলিং নিয়ে সুবিধাজনক স্থানেই আছি। তাই চট্টগ্রামে যে কন্ডিশনে আমাদের খেলতে হবে সেখানে একজন অতিরিক্ত স্পিনারকে অন্তুর্ভুক্ত করার জন্য নির্বাচিত করেছি।

সাদা পোশাকে এখন পর্যন্ত আট টেস্ট খেলে ২৭.৩০ গড়ে ৩৩ উইকেট নিয়েছেন ও’কিফ। এক ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকার করেছেন দুইবার। বুধবার বিকেলে বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা দিবেন ও’কিফ। সোমবার (৪ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে দলের সাথে থাকবেন বলে জানা যায়।