রাখাইনের অন্তত ১০টি স্থান জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে: হিউম্যান রাইটস ওয়াচ


Myanmar's

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চলের অন্তত ১০টি এলাকা আগুনে জ্বলতে দেখা গেছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে স্যাটেলাইট এর মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যে দেখা গেছে ২৫ আগস্ট বিকেলে দেশটির জায় দি পিয়ান এবং কোউ তান কাউক শহরের বেশ কয়েকটি গ্রামে আগুন জ্বলছে। এ ছাড়া ২৮ আগস্ট মংডু শহরসহ আরও আটটি স্থানে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে।

মিয়ানমারের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে দাবি করা হয়, গত ২৫ আগস্ট রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি পুলিশ চেক পোস্টে হামলা চালায় দেশটির জঙ্গি সংগঠন আরাকান রহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি যা সংক্ষেপে এএসআরএ বাহিনী। এই হামলায় বেশ কয়েকজন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিহত হয়। তবে পরবর্তীতে দেখা যায়, এই হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন শতাধিকেরও বেশি লোকজন। এদের মধ্যে স্থানীয় সংখ্যালঘুদের সংখ্যাই বেশি।

পরবর্তীতে ‘সন্ত্রাসী’ দমনের নামে রাখাইন রাজ্যে বিপুল পরিমাণে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করে দেশটির সরকার। এরপরই ওইসব এলাকাগুলোতে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে।

এদিকে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা শরণার্থীদের কথার সঙ্গে হিউম্যান রাইটস এর প্রতিবেদনের মিল পাওয়া গেছে।

বাংলাদেশে বেঁচে ফিরে আসা শরণার্থীরা জানিয়েছেন, মিয়ানমার সরকার সন্ত্রাসী দমনের নামে নিরীহ লোকজনকে হত্যা করছে। তাদের মাথা গোঁজার ঠাই জ্বালিয়ে দিচ্ছে। এমনকী তাদের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছে না শিশুরাও।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে থাকা লোকজন যারা মূলত রোহিঙ্গা হিসেবে পরিচিত তারা বরাবরই মিয়ানমার সরকারের আক্রোশের  শিকার হয়ে আসছে। দেশটির গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সূচি’র সরকার ক্ষমতায় আসার পরও এখন পর্যন্ত অগণিত রোহিঙ্গাকে প্রাণ দিতে হয়েছে।