১২ ম্যাচ নিষিদ্ধ হচ্ছেন রোনালদো?


cr7-red-1299214836

এল ক্লাসিকোর আগে একটা প্রশ্ন ছিল রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদানের, পুরো ১১ জনের দল নিয়ে ম্যাচ শেষ করতে পারবেন তো? পারেননি জিজু। দুই হলুদ কার্ডের জেরে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। বুধবার ক্যাম্প ন্যুতে বার্সেলোনার থেকে দুই গোলে এগিয়ে নামলেও রোনালদোকে পাবে না রিয়াল।

তবে এর চেয়েও বড় দুঃসংবাদ অপেক্ষা করছে সিআরসেভেন ও তার ভক্তদের জন্য! মেজাজ হারিয়ে রেফারিকে ধাক্কা দেওয়ার অভিযোগে ১২ ম্যাচ পর্যন্ত নিষিদ্ধ হতে পারেন চারবারের বর্ষসেরা এই খেলোয়াড়।

চির প্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে আরেকটি শিরোপা জয়ের পথে এগিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ। তবে এ জয়ের রাতে রিয়াল সমর্থকদের জন্য হতাশা হল রোনালদোর লাল কার্ড। গোলের পর জার্সি খুলে উৎযাপন করতে গিয়ে রিয়ালের পর্তুগীজ এই অধিনায়ক দেখেন প্রথম হলুদ কার্ড। যেটিই পরে বিপদ দেকে আনল তার জন্য। দুই মিনিট পর ডি-বক্সে ডাইভের অভিযোগে রোনালদোকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের সঙ্গে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

তবে টান টান উত্তেজনার এই ম্যাচে নায়ক, খলনায়ক কিংবা আলোচনার পুরোটা জুড়েই থাকলেন রোনালদো। ম্যাচের ৫৮ মিনিটে স্বাগতিক দর্শকদের দুয়ো ধ্বনির মধ্য দিয়ে বেনজামার পরিবর্তে মাঠে নামেন রোনালদো। তবে নিজের জাদু দেখাতে বেশি সময় নেননি রিয়ালের এই সুপারস্টার। ম্যাচের ৮০ মিনিটে পাল্টা এক আক্রমণে ইসকোর বাড়ানো বল নিজের আয়ত্তে নিয়ে বার্সা ডিফেন্ডার পিকেকে বোকা বানিয়ে ডি-বক্সে ঢুকেই জোরালো শটে বল জালে জড়ান তিনি।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে গোল করেই জার্সি খুলে উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসেন পর্তুগিজ এই অধিনায়ক। যে কারণে হলুদ কার্ড দেখাতে মোটেই ভুল করেননি রেফারি! তবে মিনিট খানিক পরেই রোনালদোর বুনো উল্লাস রুপ নিল হতাশায়! ৮১ মিনিটে যখন নিজেদের পেনাল্টি অ্যারিয়াতেই ভান করে পড়ে যাওয়ার অভিযোগে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন তিনি। এটাকে অবশ্য অনেকেই মানতে নারাজ! রিয়াল কোচ জিদানই যেমন পরবর্তীতে রেফারির এমন সিদ্ধান্তকে হাস্যকর বলে মন্তব্য করেছেন।

এরপরই মেজাজ হারিয়ে রেফারির পিঠে ধাক্কা দিয়ে বসেন রোনালদো। ফিফা আইনে আর্টিকেল ৯৬ অনুযায়ী, রেফারিকে ধাক্কা দিলে চার থেকে ১২ ম্যাচ পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞার বিধান রয়েছে। এখন দেখার বিষয় কত ম্যাচ নিষিদ্ধ হন রিয়াল মাদ্রিদের এই সুপারস্টার!