এসপিএল ফাইনালের নায়ক আশরাফুল


ashraful

সিরাজগঞ্জ প্রিমিয়ার লিগের (এসপিএল) পুরো আসর জুড়েই ব্যাটে-বলে উজ্জ্বল ছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। আর মঙ্গলবার এই টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচে নায়কই বনে গেলেন বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক। ব্যাট হাতে ৪৩ এবং বল হাতে চার উইকেট নিয়ে দল সিরাজগঞ্জ টাইগার্সকে এনে দেন শিরোপাও।

এদিন টসে জিতে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রান সংগ্রহ করে আশরাফুলের দল। ৫৩ বল খেলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন বাংলাদেশের সর্ব কনিষ্ঠ এই সেঞ্চুরিয়ান। আশরাফুল ছাড়াও সিরাজগঞ্জ টাইগার্সের হয়ে খেলেন জাতীয় দলের তারকা অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। মি. ফিনিশার খ্যাত নাসিরের ব্যাট থেকে আসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩২ রান।

জবাবে ১৭.১ ওভারে ৮১ রানেই গুটিয়ে যায় সিরাজগঞ্জ সুপার কিংস। আশরাফুল চার ওভার বল করে মাত্র নয় রানের বিনিময়ে তুলে নেন প্রতিপক্ষের চার উইকেট। দল পায় ৫১ রানের বড় জয়। ম্যাচ সেরার পুরস্কারও পান বাংলাদেশ দলের এক সময়ের এই ‘আশার ফুল’।

পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই দেখা যায় আশরাফুল ঝলক। সাত ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে তার সংগ্রহ ৩০০ রান। এ ছাড়াও বল হাতে ৩৪ বছর বয়সী আশরাফুলের ঝুলিতে রয়েছে ১৫টি উইকেট।

এদিকে, গত রোববার অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে তিনবছর পর খেলতে নেমে দেখা পেয়েছিলেন সেঞ্চুরির। এ ছাড়াও শহীদ আফ্রিদির নেতৃত্বে বিশ্ব একাদশের হয়ে মাঠ মাতাতে দেখা যাবে আশরাফুলকে। আগামী ১৬ ও ১৮ ডিসেম্বর কাতারের জাতীয় দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হবে ‘ন্যাশনাল ডে ক্রিকেট কাপ’। সেখানে কাতারের বিপক্ষে বিশ্ব একাদশের ওয়ানডে দলে আছেন বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ম্যাচ পাতানোর অভিযোগে মোহাম্মদ আশরাফুল গত তিনবছর নিষিদ্ধ ছিলেন। চলতি বছরের ১৩ আগস্ট সেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হয়। সর্বশেষ জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) ঢাকা মেট্রোর হয়ে দেখা গেছে তাকে। তবে এখনও বিপিএলের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের আসরগুলোয় খেলতে পারছেন না তিনি। সেই নিষেধাজ্ঞা উঠে যেতে আরও দুবছর সময় লাগবে।