পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ, ৪১০২ কোটি টাকা বরাদ্দ


podma

২০১৬-’১৭ অর্থবছরের পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগ প্রকল্পে ৪ হাজার ১০২ কোটি ১৩ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। সরকারের কাঠামো রূপান্তরের বৃহৎ প্রকল্পে ২০১৬-’১৭ অর্থবছরের বাজেটে এই বরাদ্দ করা হয়।

পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের প্রাক্কলিত ব্যয় ৩৪ হাজার ৯৮৮ কোটি টাকা। এরমধ্যে সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে ১০ হাজার ২৩৯ কোটি টাকা এবং চীনের ২৪ হাজার ৭৪৯ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এই প্রকল্পের মেয়াদ ২০১৬ থেকে ২০২২ সালের জুন মাস পর্যন্ত।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪ সালে ৬ থেকে ১১ জুন পর্যন্ত চীন সফরের সময়ে রেল খাতে চীন সরকারের বিনিয়োগের বিষয়টি দু’দেশের মধ্যে সাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকে অন্তর্ভূক্ত হয়। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৪ সালে ২৩ অক্টোবর রেলপথ মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে পদ্মাসেতু উদ্বোধনের দিন থেকে সেতুর ওপর দিয়ে ট্রেন চলাচলের কার্যক্রম গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান করেন।

পদ্মাসেতুর ওপর দিয়ে ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৬৯ কিলোমিটার রেল লাইন নির্মাণের মাধ্যমে জাতীয় ও আন্তঃদেশীয় রেল যোগাযোগ উন্নয়ন করা এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য। লুপ, সাইডিং, ওয়াই কানেকশন এবং ঢাকা-গেন্ডারিয়া ৩ কিলোমিটার ডাবল লাইনসহ মোট ট্র্যাক ২১৫ দশমিক ২২ কিলোমিটার।

এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জনগণের আর্থ-সামাজিক প্রভূত উন্নতি সাধিত হবে এবং একই সঙ্গে নির্মাণাধীন পায়রা সমুদ্র বন্দরের সাথে রেল যোগাযোগের স্থাপনের উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে।

ঢাকা-যশোর, ঢাকা-খুলনা ও ঢাকা দর্শনার মধ্যে দুরত্ব হ্রাস ও সময় হ্রাস পাবে। ফলে গণপরিবহন প্রবর্তনের মাধ্যমে আঞ্চলিক বৈষম্য হ্রাসকরণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অবদান রাখবে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ফলে মোট দেশীয় উৎপাদন (জিডিপি) আনুমানিক ১ শতাংশ বৃদ্ধিতে অবদান রাখবে। এই প্রকল্পের আওতায় ১০০টি ব্রডগেজ যাত্রীবাহী গাড়ি সংগ্রহ করা হবে।