চন্ডীগড় সফরে স্থানীয়দের দুর্ভোগের জন্য দুঃখ প্রকাশ ,তদন্তের আশ্বাস -নরেন্দ্র মোদী


modi-1

নিজের চন্ডীগড় সফরের জেরে স্থানীয় বাসিন্দাদের অসুবিধা হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ করলেন নরেন্দ্র মোদী। এ ব্যাপারে তদন্ত হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী প্রথমবার আসছেন। তাই গতকালই প্রশাসন নির্দেশ দেয়, শুক্রবার চন্ডীগড়ে সব সরকারি, বেসরকারি স্কুল বন্ধ রাখতে হবে। এছাড়া তাঁর কনভয় নির্বিঘ্নে যাতে বেরিয়ে যেতে পারে, সেজন্য ভিভিআইপি রুটে বিভিন্ন বাজারের পার্কিং লটে গাড়ি রাখায় নিষেধ জারি হয়।

যানবাহন নির্ধারিত রুটের বদলে অন্যত্র ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। মোদীর জনসভাস্থলের পাশেই হওয়ায় সেক্টর ২৫-এ চন্ডীগড়ের মূল শ্মশানঘাটটিকে এদিন অস্থায়ী গাড়ি পার্কিং করার ব্যবস্থা হয়। ফলে শেষকৃত্য করতে এসে দুর্ভোগে পড়েন মৃত লোকজনের আত্মীয় স্বজনেরাও। তাছাড়া শ্মশান যাওয়ার দুটি রাস্তার একটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। অনেককে শেষ মূহূর্তে অন্য শ্মশানঘাটে ছুটতে হয়।

মোদীর জনসভায় লোক নিয়ে যাওয়ার জন্য নানা রুট থেকে বাস তুলে নেয় বিজেপি। সব মিলিয়ে চূড়ান্ত হয়রানি সহ্য করতে হয় নাগরিকদের। তাঁরা প্রকাশ্যেই ক্ষোভ জানান। মানুষের দুর্ভোগ মেনে নিতে পারেননি না মোদী। বিশেষত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে নির্দেশ দেওয়ার খবরে তিনি ক্ষুব্ধ হন। টুইটারে লেখেন, আমার সফরের জন্য চন্ডীগড়ের মানুষকে যে দুর্ভোগ পোহাতে হল, বিশেষত স্কুল বন্ধ রাখা হল, সেজন্য আমি দুঃখিত। এটা এড়ানোই যেত। কার জন্য শহরবাসীর কষ্ট হল, কে দায়ী, তা খতিয়ে দেখে তাকে চিহ্নিত করতে তদন্ত হবে।