বিপিএল ধামাকা: মঞ্চ মাতাবেন হৃত্বিক, জ্যাকুলিন, কেকে


ei-216402_0

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) বাজনা বেজেছে আগেই। ঠিক হয়ে গেছে ছয় ফ্রাঞ্চাইজি। তারা অপেক্ষায় দল গোছানোর। যোগাযোগ করে যাচ্ছেন দেশি-বিদেশি সব তারকা ক্রিকেটারদের সাথে। আর বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ব্যস্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে। প্রায় সব আয়োজনই চূড়ান্ত করে ফেলা হয়েছে।

বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান মাতাতে আসবেন বলিউডের হার্টথ্রব নায়ক হৃত্বিক রোশন, স্বপ্নের নায়িকা জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ ও জনপ্রিয় গায়ক কৃষ্ণাকুমার কুন্নাথ (কেকে)। মিরপুরে ২০ নভেম্বর দুপুর ৩ টা থেকে শুরু হয়ে অনুষ্ঠানটি চলবে রাত ১০ টা পর্যন্ত। এছাড়া দেশি তারকারা তো থাকছেনই। এমনই জানিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য ও বিসিবি পরিচালক শেখ সোহেল।

জমকালো এই অনুষ্ঠান দেখতে চাইলে দর্শকদের একটু বেশিই খরচা করতে হবে। টিকিটের সম্ভাব্য মূল্য হতে পারে ৩ শ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত। জমকালো এই অনুষ্ঠান আয়োজনে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের খরচ হতে পারে আড়াই থেকে তিন কোটি টাকা।

হৃত্বিক, জ্যাকুলিন ও কেকের আসার বিষয়ে শেখ সোহেল বলেন, ‘এরই মধ্যে হৃত্বিক, জ্যাকুলিন ও কেকের সঙ্গে চুক্তি করে ফেলেছি। তারা যে আসবেন এটাই নিশ্চিত বলা চলে।’

তবে এই তিন তারকাকে আনতে কত খরচ হবে সে বিষয়ে কিছু বলেননি শেখ সোহেল, ‘আসলে ওদের পক্ষ থেকে আমাদেরকে নিষেধ করা হয়েছে যেন তাদের সঙ্গে চুক্তি টাকার পরিমাণটা কোন ভাবেই প্রকাশ না করি।’

দেশি শিল্পীরাও থাকছেন অনুষ্ঠানে। শেখ সোহেল বলেন, ‘রুনা লায়লা, সাবিনা ইয়াসমিন, মমতাজ এই তিন জনের মধ্যে একজন থাকবেন। সেই সঙ্গে ব্যান্ড দলের মধ্যে মাইলস, এলআরবিও থাকতে পারে। আমরা সবার সঙ্গে কথা বলছি।’

পুরো অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানাতে গিয়ে শেখ সোহেল বলেন, ‘দুপুর থেকেই দর্শকরা মাঠে প্রবেশ করতে পারবেন। আমরা অনুষ্ঠান শুরু করবো ৪ টা থেকে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের উদ্বোধনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শুরু হবে অনুষ্ঠান। এরপর বাংলাদেশের শিল্পীরা গান দিয়ে শুরু করবেন। মাঝে জ্যাকুলিন ও হৃত্বিক ও কেকে তাদের পরিবেশনা উপস্থাপন করবেন। তবে এখনও পুরো অনুষ্ঠানের মডেলটি সাজানো হয়নি।’

তারকাদের পরিবেশনা ছাড়াও অনুষ্ঠানে লেজার শো এবং ফায়ারওয়ার্কসও থাকবে বলেও জানান তিনি। টিকিটের সাম্ভাব্য মূল্য নিয়ে শেখ সোহেল বলেন, ‘আমরা এখনও চূড়ান্ত মূল্য নির্ধারণ করিনি। তবে ১০ হাজার, ৫ হাজার, এক হাজার. ৫’শ ও ৩’শ টকা ধার্য্য করা হতে পারে। টিকিটের মূল্য আমরা খুব দ্রুতই চূড়ান্ত করবো।’