বিদেশি হত্যায় খালেদাকে দোষারোপ করা হাস্যকর: নজরুল ইসলাম


bnp-nazrul-34622

বিদেশি নাগরিক হত্যার সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সম্পৃক্ততার অভিযোগকে ‘অবিশ্বাস্য ও হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করেছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে নিহত জেহাদ স্মরণে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ দেশের মানুষকে মূর্খ ভাবেন কিনা জানিনা কিন্তু তারা অবিশ্বাস্য সব কথা-বার্তা বলেন। জামায়াতের সঙ্গে জড়িয়ে বিএনপি নিয়ে তাদের কোন না কোন কথা বলতেই হবে। বিএনপিকে হেয় করতেই সরকার মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছে।’

যেকোন প্রকারে বিএনপিকে হেয় করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এদিকে সরকারের পক্ষ থেকে এক সপ্তাহের মধ্যে বাংলাদেশে দুই বিদেশি হত্যার ঘটনায় বিএনপি-জামায়াতের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।

স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৪ অক্টোবর গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি-জামায়াত জোটের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ ঘটনার পেছনে নিশ্চয় তাদের মদদ আছে। আমাদের অর্জনগুলোকে ম্লান করানোর জন্য এই ঘটনাগুলো ঘটানো হয়। এটার পেছনে নিশ্চয় একটা উদ্দেশ্য আছে। তাদের হাত আছে।

পরদিন শনিবার সকালে গণভবনে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জ্বালাও পোড়াও করে সরকারের উৎখাতে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন এখন বিদেশে বসে ষড়যন্ত্র করছেন।’ বেগম জিয়া দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

গত ২৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার গুলশানে ইতালীয় এনজিও কর্মী সিজার তাভেলা ও ৩ অক্টোবর রংপুরে জাপানি নাগরিক হোসে কুনিও খুন হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এর সঙ্গে বিএনপি-জামায়াতের সংশ্লিষ্টতার ইঙ্গিত করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ও তার তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় তার ফেসবুক পাতায় দুই বিদেশি হত্যায় বিএনপি-জামায়াতের জড়িত থাকার বিষয়ে ‘নির্ভরযোগ্য সূত্রের’ তথ্য থাকার কথা বলেন।

এছাড়া সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী খালেদা জিয়ার লন্ডন সফরকে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত করে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন। তবে বিএনপি শুরু থেকেই এসব বক্তব্যের সমালোচনা করে আসছে।