‘সিরিয়ায় রুশ হামলা আইএসকে শক্তিশালী করবে’: ওবামা


GettyImages-491033766-714x476

প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সমর্থনে সিরিয়ায় বেপরোয়া রুশ সামরিক অভিযান দুর্যোগ ডেকে আনতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা। তিনি বলেন, রাশিয়ার এ কৌশলে মধ্যপন্থী বিরোধীরা আত্মগোপনে যাচ্ছে এবং আইএসকে আরও শক্তিশালী করে তুলছে।

তিনি বলেন, ‘বর্বর’ আসাদের বিরোধিতাকারী সকল সশস্ত্র গোষ্ঠীকে সন্ত্রাসী হিসেবে রাশিয়ার দেয়া তকমা তিনি প্রত্যাখান করছেন। সিরিয়ায় কেবল আইএসের অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালানো হচ্ছে বলে রাশিয়া জোরালোভাবে দাবি করেছে। তবে সিরিয়ার বিরোধী ও অন্যরা অভিযোগ করেছে, বাশারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত মধ্যপন্থীরাও রুশ হামলার শিকার হচ্ছে।

রাশিয়া বলেছে, তাদের সামরিক বিমান আইএসের কমান্ড সেন্টার, অস্ত্রভান্ডার ও সামরিক যান লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে। আইএসের শক্ত ঘাঁটি রাকাসহ আলেপ্পো, হামা ও ইদলিবের লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। তবে আলেপ্পো, হামা ও ইদলিবে আইএসের উপস্থিতি খুবই সীমিত।

হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে ওবামা বলেন, ‘এখানে সমস্যাটা হল, আসাদ ও তার বর্বরতা যা তিনি সিরিয়ার লোকজনের ওপর চালাচ্ছেন তা অবশ্যই বন্ধ করতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘আসাদের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ যে কাউকে ধ্বংস করতে রাশিয়ার অভিযানে সহযোগিতা করবে না যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার দৃষ্টিভঙ্গি হল, তারা সবাই সন্ত্রাসী এবং এটা দুর্যোগ ডেকে আনতে পারে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, রাশিয়া ও আসাদের অপর মিত্র ইরানের সামনে বিপদ রয়েছে। তবে তিনি স্বীকার করেন, সিরিয়া প্রশ্নে মতপার্থক্যের কারণে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র কেউই ‘ছায়া যুদ্ধে’ অংশ নেবে না। ওবামা বলেন, সিরিয়ার সমস্যা হলো বাশার আল আসাদ। জনগণের সঙ্গে তাঁর নিষ্ঠুর আচরণ বন্ধ করতে হবে। কিন্তু রাশিয়া যেভাবে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে, এতে আসাদের শত্রুপক্ষকে লক্ষ্যবস্তু করা হচ্ছে। এতে আসাদ লাভবান হচ্ছেন।

শুক্রবার টানা তৃতীয় দিনের মতো সিরিয়ায় বিমান হামলা চালায় রাশিয়া। মস্কোর এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা গতকাল বলেন, এ হামলা তিন থেকে চার মাস ধরে চলতে পারে। সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলা অবিলম্বে বন্ধ করতে আইএসবিরোধী মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোট আহ্বান জানিয়েছে। ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জিহাদিদের দমনের লক্ষ্যে গঠিত ওই জোট গতকাল এক বিবৃতিতে বলেছে, রাশিয়ার ওই হামলায় সিরিয়ায় সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রপন্থা তীব্র হবে।