কুন্দুজের ঘটনা ‘ক্ষমার অযোগ্য যুদ্ধাপরাধ’, তদন্ত করবে যুক্তরাষ্ট্র


hh

আফগানিস্তানের কুন্দুজের হাসপাতালে বোমা হামলার ১৯ জন নিহত হওয়ার ঘটনাকে সম্ভাব্য যুদ্ধাপরাধ বলে মনে করছে জাতিসংঘ। এ ঘটনাকে ক্ষমার অযোগ্য বলে উল্লেখ করেছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক প্রধান জায়েদ রাদ আল-হুসেইন। এদিকে ঘটনার তদন্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি খবরটি নিশ্চিত করেছে।

নিহতদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেন তিনি এই বিষয়ে পূর্ণ তদন্ত প্রতিবেদন চান এবং সুবিচার প্রতিষ্ঠা করতে চান।

মার্কিন সামরিক বাহিনীর বরাতে বিবিসি জানায়, তালেবানদের হামলা চালানোর সময় আসলে সেই হাসপাতাল ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এ্যাশ কার্টার একে ‘তীব্র লড়াইয়ের মধ্যে ঘটে যাওয়া একটি শোকাবহ ঘটনা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি বলেছেন, মার্কিন বাহিনী অধিনায়ক তার কাছে ঘটনা ব্যাখ্যা করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শনিবার রাতের এ ঘটনায় ১৯ জন নিহত হয়েছে যাদের ৯জন আন্তর্জাতিক দাতব্য প্রতিষ্ঠান মেদসাঁ সঁ ফঁতিয়ের চিকিৎসাকর্মী। বাকিরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী যার মধ্যে শিশুও রয়েছে। এছড়া নিখোঁজ রয়েছেন প্রায় ৩০ জন। মেদসাঁ সঁ ফঁতিয়ে জানায়,শনিবার রাতে ৩০ মিনিটেরও বেশি সময় ধরে এই বিমান হামলা চালানো হয়।

গেলো সোমবার কুন্দুজ শহরে তালেবান নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পর থেকেই শহরটি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে মার্কিন বাহিনী। একটি আফগান টিভি চ্যানেলের সংবাদদাতা বলেছেন, বিক্ষিপ্ত যুদ্ধ এখনো চলছে এবং তালেবান যোদ্ধারা আবাসিক ভবনে আশ্রয় নিয়ে সরকারি বাহিনীর ওপর হামলা চালাচ্ছে।