মেক্সিকোতে জেলখানায় দাঙ্গা: ৫২ বন্দী নিহত


aaa

মেক্সিকোর উত্তরে মন্টেরে শহরের টপো চিকো কারাগারে এক রক্তক্ষয়ী দাঙ্গা এবং অগ্নিকান্ডে অন্তত ৫২ জন বন্দী নিহত হয়েছে। দুই দল বন্দীর মধ্যকার দ্বন্দ্ব সংঘাতে রূপ নিলে এ ঘটনা ঘটে। প্রায় চল্লিশ মিনিট ধরে চলা সংঘর্ষে প্রতিপক্ষকে আঘাত করার জন্য বন্দীরা ধারালো অস্ত্র, ব্যাট এবং লাঠি ব্যবহার করে। তবে সে সময় কোন কারাবন্দী পালিয়ে যেতে পারেনি বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বিবাদমান দল দুটি বহুদিন ধরে মেক্সিকোর মাদক সাম্রাজ্যের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে পরস্পরের বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে। এমনকি জেলখানার ভেতরেও সেই বিরোধ প্রকটভাবে রয়েছে। এরই জের ধরে মধ্যরাতে একদল অন্যদলের ওপর ধারালো অস্ত্র, লাঠি আর ব্যাট নিয়ে আক্রমণ চালায়। এক পর্যায়ে এদেরই কেউ জেলখানার একটি গুদাম ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। ফলে ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে পুরো কারাগার। সাধারণ বন্দীরা আতংকিত হয়ে ছোটাছুটি শুরু করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বন্দীদের আত্মীয়স্বজনেরা জেলখানার বাইরে ভিড় জমায়। স্বজনের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন মানুষেরা দীর্ঘ সময় কারাগারের বাইরের রাস্তা অবরোধ করে রাখেন। এক পর্যায়ে বাইরে নিরাপত্তা কর্মীদের দিকে ইটপাটকেল ছুড়তে শুরু করেন। তবে, গভর্নর জেমি রদ্রিগুয়েজ জানান, পরিস্থিতি এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে। কেউ জেল থেকে পালায়নি, কিংবা সংঘর্ষে কোন আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহারও হয়নি। কারাগারের ভেতরে এবং আশেপাশের অন্য কারাগারগুলোতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঘটনা নিয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি জানিয়েছে, আহত আরও ১২ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশংকাজনক। এদিকে আর দুদিন পরেই মেক্সিকোতে এক রাষ্ট্রীয় সফরে যাবার কথা রয়েছে পোপ ফ্রান্সিসের। এ সময় যুক্তরাষ্ট্র সীমান্তের কাছে একটি কারাগার পরিদর্শন করার কথা রয়েছে তার। সফরকালে মাদক চোরাচালান সংক্রান্ত সংঘর্ষ নিয়ে বন্দীদের সাথে পোপের আলোচনা হওয়ারও কথা রয়েছে।