ভোট দিতে না পেরে মানুষ রাস্তায় কান্না করছে : জিয়াউদ্দিন বাবলু


 

জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেছেন, ‘বর্তমান সরকার দেশের নির্বাচনী ব্যবস্থা ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে। চলমান স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা জিতেছে। হেরেছে দেশের ভোটাররা। ভোট দিতে না পেরে মানুষ রাস্তায় কান্না করছে, এটা মেনে নেয়া যায় না।’

মঙ্গলবার (২ মার্চ) দুপুরে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে জাপা মহাসচিব এসব কথা বলেন।

জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, আওয়ামী লীগ দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে। মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। আমরা মানুষের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠিত করব। ভোটাধিকার রক্ষার আন্দোলনে প্রয়োজনে প্রাণ দেব। কিন্তু মাথা নত করব না। বর্তমান সরকারের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে জাতীয় পার্টি অংশ নেবে কিনা তা আগামী প্রেসিডিয়াম সভায় সিদ্ধান্ত হবে।’

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনে ইভিএম মেশিনে শতভাগ ভোট পড়ছে, এটা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। ইভিএমকে আওয়ামী ইভিএমে পরিণত করা হয়েছে। ইভিএম নয়, ইভিএম পরিচালনায় জড়িতদের পরিবর্তন করতে হবে।

নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ চান কি-না সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে জাতীয় পার্টি মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশনের লাজ-লজ্জা থাকলে তাদেরই উচিত সিদ্ধান্ত নেয়া।’

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যে আইনে মানুষের মৌলিক ও মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয় সে আইনের পরিবর্তন আমরা অবশ্যই চাই।’

সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তৃতা করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য এটিইউ তাজ রহমান, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, মেজর (অব.) রানা মো. সোহেল এমপি, ভাইস চেয়ারম্যান আহসান আদেলুর রহমান এমপি, এইচ এম শাহরিয়ার আসিফ প্রমুখ।