ব্যবসায়ীকে আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায়, ৩ পুলিশ বরখাস্ত


1501281048

রাজধানীর উত্তরায় এক তরুণ ব্যবসায়ীকে তার বান্ধবীসহ রাতভর আটকে রেখে আড়াই লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে তিন পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গত রবিবার গভীর রাতে এ ঘটনার পর অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার পুলিশের বিভাগের উপ-কমিশনার বিধান চন্দ্র ত্রিপুরা এসআই আব্দুর রউফ বাহাদুর, এএসআই ফারুক আহমেদ ও কনস্টেবল গোলাম মোস্তফাকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। ভুক্তভোগী তরুণ ব্যবসায়ী জানান, রবিবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে তিনি তার বান্ধবীকে বাসায় পৌঁছে দেয়ার জন্য সিএনজি অটোরিকশায় উত্তরা ৯ নম্বর সেক্টরের একটি রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। পথে টহল পুলিশ ওই সিএনজি অটোরিকশাটি তল্লাশি করে। স্বামী-স্ত্রী সম্পর্ক না থাকার কারণে তাদেরকে পুলিশের গাড়িতে তুলে নেয়। এরপর থেকে এসআই আব্দুর রউফ বাহাদুর তাদের অভিভাবকদের কাছে জানিয়ে দেয়ার জন্য হুমকি দেন। পরে তিনি বিষয়টি অভিভাবককে জানানোর জন্য অনুরোধ করে। এ অবস্থায় ঐ পুলিশ কর্মকর্তা তার বান্ধবীর বিরুদ্ধে পতিতাবৃত্তির অভিযোগ আনেন। তিনি তাদের কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী আরো জানান, রাত ১২ টা থেকে ভোর পর্যন্ত তাদেরকে পুলিশের গাড়িতে বসিয়ে রেখে নানা ধরনের হুমকি দেয়া হয়। এক পর্যায়ে ভোরের দিকে তার এক বন্ধুর কাছে মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানান। ঐ বন্ধু আড়াই লাখ টাকা এনে পুলিশের কাছে দেয়ার পর তাদের ছেড়ে দেয়া হয়। অন্যদিকে, ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী বিষয়টি নিয়ে পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপ-কমিশনারের কাছে অভিযোগ করেন। উপ-কমিশনার বিষয়টি তদন্ত করার পর প্রাথমিকভাবে তাদের তাদের সাময়িক বরখাস্ত করেন। এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি অপারেশন মো. শাহ আলম বলেন, অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে সাময়িক বরখাস্তের ব্যাপারে এখন পর্যন্ত থানায় কোন লিখিত কাগজ আসেনি।