নারায়নগঞ্জে এক পরিবারের পাঁচজন খুন


hhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhhh

নারায়ণগঞ্জের বাবুরাইল এলাকার একটি বাসায় একই পরিবারের পাঁচজনকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তাদের মধ্যে দুজন শিশুও রয়েছে। শনিবার রাতে ওই বাসা থেকে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে। স্থানীয় সূত্র জানায়, নিহতরা হলেন তাসলিমা (৪০), তার ছেলে শান্ত (১০), মেয়ে সুমাইয়া (৫), তাসলিমার জা লামিয়া (২৫) এবং তাসলিমার ভাই মোরশেদুল (২০)। এলাকাবাসী জানান, নারায়ণগঞ্জ নগরের উত্তর প্রান্তে ২ নাম্বার বাবুরাইল এলাকার পাঁচতলা একটি বাড়ির নিচতলায় ওই পরিবারটি ভাড়া থাকত। শনিবার সারাদিন ওই বাসা থেকে কোনো সাড়া-শব্দ পাওয়া যাচ্ছিল না। দরজাও আটকানো ছিল। সন্ধ্যার পর আশপাশের লোকজনের সন্দেহ হলে তারা নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে দরজা খুলে ভেতরে ৫টি গলাকাটা লাশ দেখতে পায়। গতকাল রাত ১০টার দিকে ওই বাসার সামনে গিয়ে দেখা যায়, বাসাটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ। পুলিশ ছাড়া ভেতরে কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছিল না। খবর পেয়ে সেখানে আলামত সংগ্রহ করার জন্য পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) কর্মকর্তারা যান। বাসার সামনে কয়েকশ’ উৎসুক মানুষের ভিড় ছিল। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, তাসলিমার স্বামী শাহীন ঢাকায় গাড়ি চালান। সপ্তাহে এক দিন তিনি নারাণগঞ্জের বাসায় আসেন। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শাহজালাল জানান, গলা কেটে ওই পাঁচজনকে হত্যা করা হয়েছে। তবে কী কারণে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তা এখনো নিশ্চিত নয়।