৩০ জুনের মধ্যে বকেয়া বিল পরিশোধে বাধ্য করবেন না : ন্যাপ


করোনা মহামারির মধ্যে বকেয়া বিলের জন্য বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নের হুমকি অত্যন্ত অমানবিক ও নিষ্ঠুরতা। করোনা দুর্যোগের মধ্যে গ্যাস-বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়ে সরকারের জ্বালানি, খনিজ ও বিদ্যুত প্রতিমন্ত্রী গণবিরোধী অবস্থান নিয়েছেন।

বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব বলেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

তারা বলেন, সাধারণ মানুষের আয় রোজগার বন্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় বিদ্যুত-গ্যাসের সংযোগ বিচ্ছিন্নের ঘোষণা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। সরকারের উচিৎ করোনাকালীন সময়ে জনগণের পাশে দাঁড়ানো, পানি, বিদ্যুত, জ্বালানি গ্যাসের বিল মওকুফ করা। কিন্তু তা না করে বিদ্যুত-গ্যাসের সংযোগ বিচ্ছিন্নের গণবিরোধী ঘোষণা জনগণ কেনাভাবেই মেনে নিতে পারে না।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, বকেয়া বিদ্যুত ও গ্যাসের বকেয়া বিল পরিশোধে সরকারি হুমকির ফলে বাড়ির মালিকরাও ভাড়াটিয়াদের উপর এক ধরনের চাপ প্রয়োগ করছে বকেয়া ভাড়া পরিশোধ করতে। বাড়িওয়ালা-ভাড়াটিয়াদের মধ্যে কোথাও কোথাও সংঘাতও সৃষ্টি হচ্ছে। যার ফলে সমাজে এক ধরনের অস্থিরতা সৃষ্টি হচ্ছে, যা সমাজে নতুন করে সমস্যা সৃষ্টি করবে।

তারা সংযোগ বিচ্ছিনের নোটিশ অবিলম্বে প্রত্যাহার করার দাবি জানান এবং করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে সকল গ্রাহকের বিগত ৩ মাস এবং আরও আগামী ৩ মাসের বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানির বিল মওকুফের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।