বুধবার নিজের সেরাটা দিতে চান সানডে


গতবার এএফসি কাপে আবাহনী লিমিটেডের সাফল্যে নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার সানডে চিজোবার অনেক অবদান। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪ গোল ছিল তার। আগামী বুধবার থেকে এএফসি কাপের নতুন মিশন শুরু হচ্ছে মারিও লেমোসের ছাত্রদের। এবার খেলতে হবে বাছাই পর্ব থেকে। আর শুরুর ম্যাচ থেকেই নিজেকে উজাড় করে দিতে চাইছেন সানডে।

শুরুতেই আবাহনীর প্রতিপক্ষ মালদ্বীপের মাজিয়া স্পোর্টস অ্যান্ড রিক্রিয়েশন ক্লাব। সানডে চান এ ম্যাচ থেকে তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে। সে জন্য কী দরকার সবাই সেটা জানেন- গোল। গোলের জন্য অনুশীলনে ঘাম ঝরাচ্ছে দলটি। সানডে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী, ‘আমার বিশ্বাস দল জিততে পারবে। তবে জিততে হলে স্কোর করতে হবে। ফিনিসিংটা ভালো করতে হবে। হারলে যে আমরা পিছিয়ে যাবো,সেটা মাথায় রেখেই খেলতে হবে। ঢাকায় তিন পয়েন্ট পেলে আমরা এগিয়ে যাবো। এটা সবাই জানে। তাই এখানে ছাড় দেওয়ার সুযোগ নেই।’

শুধু গোল দেওয়া নয়,টিম গেম খেলেই প্রতিপক্ষকে হারাতে চান সানডে, ‘গতবার আবাহনী গোল করার পাশাপাশি গোল খেয়েছেও। মাঝে মধ্যে গোল খেয়ে যায়। কিন্তু এটাই ফুটবল। কোনও দলের পক্ষে সব সময় পারফেক্ট খেলা কঠিন। আমি মনে করি আমাদের ভালো খেলোয়াড় আছে। এদের নিয়েই টিম গেম খেলতে পারলে জিতবো।’

আবাহনীর রক্ষণেরও একটা পরীক্ষা হবে এবার। বিশেষ করে মালদ্বীপের ক্লাবগুলোর কাছে যেহেতু হারের রেকর্ডটা ভালোই। ডিফেন্ডার রায়হান হাসান এবার ততটা ভয় পাচ্ছেন না, ‘আমাদের এবারের দলটি ভালো। অনেক সময় আমাদের ডিফেন্ডিং পারফেক্ট হয় না। গোল করতে গিয়ে দেখা যায় উল্টো গোল হজম করে ফেলি। তবে এবার ব্রাজিলিায়ান ডিফেন্ডারসহ অন্যরা আছে। তাই আশা করছি ভুল কম হবে। আমরা ম্যাচ জিততে পারবো।’

মাজিয়ার খেলা নতুন করে ভিডিওতে দেখেছেন রায়হান-সাদরা। তা দেখে রায়হানের মূল্যায়ণ, ‘এবারও গ্রুপ পর্বে কোয়ালিফাই করার ইচ্ছা। তবে তার আগে মাজিয়াকে হারাতে হবে। তাদের খেলা দেখেছি। রক্ষণ ঠিক রেখে ওরা প্রতি আক্রমণে বেশি খেলে থাকে। আমরা সেটা নিয়ে কাজ করছি। এখন নিজেদের খেলাটা খেলতে পারলে জেতা সম্ভব।’