মার্কিন রণতরীর কাছে ইরানের রকেট পরীক্ষা


হরমুজ প্রণালিতে মার্কিন একটি রণতরীর কাছে ইরানের নৌ বাহিনী রকেট পরীক্ষা চালিয়েছে। ইরানের ছোড়া রকেটগুলো ইউএসএস হ্যারি ট্রুম্যানের দেড় হাজার গজের মধ্যে এসে পড়ে। সে সময় ধারে পাশে ফরাসী একটি যুদ্ধ জাহাজ এবং বেশ কিছু বাণিজ্যিক পণ্যবাহী জাহাজও ছিল। ঘটনা ঘটেছে শনিবার, তবে মার্কিন সেনাবাহিনীর পক্ষ এখন তা জানানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, রেডিওতে মাত্র ২৩ মিনিট আগে ঘোষণা দিয়ে ইরান এই পরীক্ষা চালায়।

মার্কিন সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র কমোডর কাইল রেইনস্‌ ইরানের এই অস্ত্র পরীক্ষাকে “চরম উস্কানিমুলক” হিসাবে বর্ণনা করেছেন। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, কিছুদিন আগে পরমাণু চুক্তি সইয়ের মধ্য দিয়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা প্রশমনের যে লক্ষণ দেখা যাচ্ছিল তা হয়ত আবার বদলে যাবে।

ইরান এবং ওমানের মাঝ দিয়ে প্রবাহিত ২১ মাইলের মত চওড়া হরমুজ প্রণালি জ্বালানি তেল পরিবহণের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি নৌ পথ। ১৯৮৮ সালের এপ্রিলে হরমুজ প্রণালিতে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে ক্ষণস্থায়ী একটি যুদ্ধ হয়েছিল। সে সময় ইরানের পাতা মাইনে মার্কিন একটি ফ্রিগেড মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলে, যুক্তরাষ্ট্র ইরানের দুটো সামরিক নৌযান সহ ছয়টি জাহাজ ডুবিয়ে দেয়।

সাগরে ইরানের দুটো তেলকুপ প্লাটফর্মও ধ্বংস করে দেয়া হয়। দুই মাস পরে অর্থাৎ জুলাইতে হরমুজ প্রণালির ওপর মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ইরানের একটি যাত্রী বিমান বিধ্বস্ত হয়ে ২৯০ জন মারা যায়। এই প্রণালির কাছে বাহরাইনে মার্কিন নৌ বাহিনীর পঞ্চম নৌবহর মোতায়েন করা রয়েছে।