ধোনি-কোহলিসহ ভারতের কাছে ৭ ক্রিকেটার চেয়েছে বিসিবি


 

ইংল্যান্ডের মাটিতে সবশেষ ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা যায়নি ভারতের তারকা ক্রিকেটার ও সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর, ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশ সিরিজ খেলেছে ভারত। সেখানে ছিলেন না ধোনি।

এমনকি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসন্ন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের স্কোয়াডেও রাখা হয়নি এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানকে। অথচ স্কোয়াড ঘোষণার আগে থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে ধোনির অনুশীলনের ভিডিও।

ভক্ত-সমর্থকদের আশা ছিলো, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই হয়তো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবেন ধোনি। তবে সেটি হচ্ছে না সহসাই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে ধোনির অপেক্ষা করতে হতে পারে আগামী বছরের মার্চে। আর এটি হতে পারে বাংলাদেশের মাটিতে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আগামী বছরের ১৭ মার্চ থেকে পরের বছরের ১৭ মার্চ পর্যন্ত জাতীয়ভাবে পালন করা হবে মুজিববর্ষ। যেখানে ক্রীড়াঙ্গনের জন্যও থাকবে নানান আয়োজন।

তার অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশকে নিয়ে একটি দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনা করা হয়েছে। সে ম্যাচের এশিয়া একাদশে ভারতের ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণের জন্য দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানাচ্ছে এ খবর। বিসিবি চাহিদার তালিকায় সবার ওপরে রয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনির নাম। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজনকে উদ্ধৃত করে এ খবর প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়া টুডে।

যেখানে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশের মধ্যে দুইটি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচের আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এজন্য বিসিসিআইসহ এশিয়া অন্যান্য ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করছি। যাতে সে দুই ম্যাচের জন্য খেলোয়াড়দের অনুমতি দেয়।’

সংবাদ মাধ্যমটি জানাচ্ছে, বিসিসিআইয়ের কাছে মহেন্দ্র সিং ধোনিসহ মোট সাত ক্রিকেটারের অনুমতি চেয়েছে বিসিবি। তারা হলেন বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, জাসপ্রিত বুমরাহ, মহেন্দ্র সিং ধোনি, হার্দিক পান্ডিয়া, ভুবনেশ্বর কুমার এবং রবীন্দ্র জাদেজা।