তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ইরানে ব্যাপক বিক্ষোভ, নিহত ১


ইরানে রেশনে দেয়া পেট্রলের দাম ৫০ শতাংশ বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন দেশটির হাজার হাজার মানুষ। এতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত একজনের প্রাণহানি ঘটেছে। শনিবার ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে ইরানে বিক্ষোভের খবর দিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি রেশনে দেয়া পেট্রলের দাম ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি এবং মাসিক রেশনের পরিমাণ নির্ধারণের ঘোষণা দেয়ার প্রতিবাদে সিরজান শহরে বিক্ষোভ হয়েছে।

শুক্রবার দেশটির সরকারি ঘোষণায় জানানো হয়, দেশটিতে এক লিটার পেট্রলের নিয়মিত মূল্য ১০ হাজার রিয়াল থেকে ১৫ হাজার রিয়াল হয়ে যাবে। এছাড়া মাসে প্রত্যেক প্রাইভেট যানের জন্য ৬০ লিটার তেল বরাদ্দ থাকবে। এছাড়া নির্ধারিত পরিমাণের বাইরে পেট্রল কিনতে চাইলে প্রত্যেক লিটারের মূল্য পড়বে ৩০ হাজার রিয়াল।

ইরানের শীর্ষস্থানীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী অর্থনৈতিক পরিষদের এই ঘোষণার ফলে দেশজুড়ে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। গত বছর ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির পারমাণবিক চুক্তি থেকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেয়ার পর দেশটির বিরুদ্ধে নতুন করে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। তখন থেকে অর্থনৈতিক চাপের মধ্যে রয়েছে ইরান।

স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদ আবাদি বলেন দেশটির বার্তাসংস্থা আইএসএনএ-কে বলেন, সিরজানে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন…তবে ওই ব্যক্তি আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন কি-না তা জানতে আমরা তদন্ত করছি। শহরটিতে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী শান্তি ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেছিল।

তিনি বলেন, সিরজানের বিক্ষোভে সশস্ত্র মুখোশধারী ব্যক্তিরা অনুপ্রবেশ করে নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। জনগণকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীকে অনুমতি দেয়া হয়নি…। শহরের পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আইআরএনএ বলছে, সিরজানে তীব্র বিক্ষোভের সময় উত্তেজিত জনতা একটি জ্বালানির গুদামে আক্রমণ চালিয়েছে সেখানে আগুন ধরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছে।