বাগদাদি হত্যায় ট্রাম্পকে সৌদি যুবরাজের অভিনন্দন


জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) নেতা আবু বকর আল-বাগদাদিকে হত্যা করায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিনন্দন জানিয়েছেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান। বাগদাদির এই হত্যার ঘটনাকে চরমপন্থী গোষ্ঠীটির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ঐতিহাসিক সাফল্য হিসেবে অভিহিত করেছেন সৌদি যুবরাজ।

মঙ্গলবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল আল-এখবারিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এদিকে, সোমবার হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আজ সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আইএসের প্রতিষ্ঠাতা এবং নেতা আবু বকর আল-বাগদাদিকে বিচারের মুখোমুখি করার মিশন সফল করায় প্রেসিডেন্টকে অভিনন্দন জানিয়েছেন ক্রাউন প্রিন্স।

রোববার ভোর রাতে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলের ইদলিব প্রদেশে অভিযান চালিয়ে বিশ্বের মোট ওয়ান্টেড জঙ্গি আবু বকর আল-বাগদাদিকে হত্যা করে মার্কিন এলিট ফোর্সের সদস্যরা। হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলনে আইএসের প্রধান বাগদাদিকে মার্কিন অভিযানে হত্যা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন ট্রাম্প।

তিনি বলেন, সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে মার্কিন বিশেষ বাহিনীর অভিযানে ‘কুকুরের মতো, কাপুরুষের মতো’ মারা গেছেন বাগদাদি। ট্রাম্প বলেন, সুরঙ্গের ভেতরে বিস্ফোরক ভেস্টের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে তিন সন্তানসহ মারা গেছেন আল-বাগদাদি। এ সময় কান্নাকাটি, চিৎকার ও চেচামেচি করছিলেন তিনি।

চলতি বছরের এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার গীর্জা ও রেস্টুরেন্টে বোমা হামলা চালিয়ে আইএসের সদস্যরা ২৫০ জনকে হত্যা করেছে বলে দাবি করে এক ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছিলেন আইএসের এই প্রধান। ২০১৪ সালের ইরাকের মসুলের গ্রেট মসজিদে প্রথমবারের মতো দেখা গিয়েছিল বাগদাদিকে। ওই মসজিদে দেয়া এক ভাষণে সিরিয়া এবং ইরাকের কিছু অঞ্চল ইসলামি খিলাফত রাষ্ট্রের ঘোষণা দিয়ে আলোচনায় আসেন।