আবরার হত্যা : একজনের জবানবন্দি, পাঁচজন কারাগারে


বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় মুজাহিদুর রহমান ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দি শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক।

অন্যদিকে পাঁচজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশিদ। তারা হলেন- বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, সহ-সভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ, গ্রন্থ ও প্রকাশনা সম্পাদক ইশতিয়াক আহমেদ ওরফে মুন্না, সদস্য মুনতাসির আল জেমি ও খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম ওরফে তানভীর। এর আগে মঙ্গলবার তাদের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

 তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের একটি কক্ষে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হয়

হত্যাকাণ্ডে জড়িত হিসেবে যাদের নাম এসেছে, তারা সবাই ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। ছাত্রলীগ ইতোমধ্যে ১১ জনকে বহিষ্কার করেছে। আবরারের বাবা যে ১৯ জনের নামে মামলা করেছেন, তাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে কর্তৃপক্ষ।

আবরার হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে গত কয়েক দিনে মোট ১৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে এ মামলায় তদন্তের দায়িত্বে থাকা গোয়েন্দা পুলিশ।