দেশব্যাপী অর্ধদিবস হরতাল আজ


গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকে আজ রোববার দেশব্যাপী অর্ধদিবস (সকাল ৬টা-দুপুর ২টা) হরতাল। বিএনপি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি হরতালে নৈতিক সমর্থন জানিয়েছে। এদিকে পুরোপুরি সমর্থন জানিয়েছে গণফোরাম, নাগরিক ঐক্য, বাংলাদেশ ন্যাপ, গণতান্ত্রিক বাম ঐক্য এবং ক্ষেতমজুর সমিতি।

দেশব্যাপী অর্ধদিবস হরতাল সফল করতে শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাব থেকে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল পর্যন্ত পদযাত্রা করে বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দ। তারা গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ হরতাল পালনের জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান। এছাড়া হরতাল সফল করার জন্য বাম জোটের নেতৃবৃন্দ গত কয়েকদিন ধরে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা, পাড়া মহল্লায় প্রচারাভিযান চালিয়েছে।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে পদযাত্রার সূচনা বক্তব্যে নেতৃবৃন্দ বলেন, গণশুনানিতে আমাদের বক্তব্য অগ্রাহ্য করে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরী কমিশন (বিইআরসি) অযৌক্তিভাবে গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করেছে। রান্নার গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করায় জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়বে। সিএনজির দাম বৃদ্ধি করায় পরিবহন ব্যয় বাড়বে। শিল্প কারখানায় ব্যবহৃত গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করায় শিল্পপণ্যের দাম বৃদ্ধি পাবে। বিদ্যুৎকেন্দ্রে সরবরাহকৃত গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করায় বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পাবে। বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি পেলে শিল্প পণ্যসহ, কৃষি সেচে ব্যয় বৃদ্ধি পাবে। এইভাবে ব্যয় বৃদ্ধির ফাঁদে নিপতিত হবে জনগণ। জনগণের জীবন নির্বাহের ব্যয় বাড়বে। দেশের জনগণের পকেট থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া হবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে এলএনজির দাম কমায় ভারতে সিলিন্ডার গ্যাসের দাম হ্রাস করা হয়েছে। অন্যদিকে বাংলাদেশ সরকার এলএনজি, এলপিজি গ্যাস ব্যবসায়ীদের পকেট ভারী করার জন্য সিলিন্ডার গ্যাসের দাম কৃত্রিমভাবে বাড়িয়ে রেখেছে। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সিলিন্ডার গ্যাসের দাম বর্তমান বাজার দামের অর্ধেকে কমিয়ে আনার দাবি জানান।

হরতালে কোনো প্রকার উস্কানি প্রদান না করার জন্য সরকারকে হুঁশিয়ার করে দেন নেতৃবৃন্দ। সেই সঙ্গে দেশবাসীকে কোনো ধরনের উস্কানিতে পা না দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে জনস্বার্থে ডাকা এ হরতাল সফল করার আহ্বান জানান। তারা বলেন, সরকারের পেটোয়া বাহিনী উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করবে। সে উস্কানীতে কেউ সাড়া দেবেন না।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, সিপিবির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাজেকুজ্জামান রতন। সদরঘাট টার্মিনালে পদযাত্রার সমাপনীতে বক্তব্য রাখেন কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম।

পদযাত্রায় অংশ নেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ, বাসদের (মার্কসাদী) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মানস নন্দী, গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য বাচ্চু ভূইয়া, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা লিয়াকত আলী, সিপিবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য বহ্নি শিখা জামালী, বাসদের (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ফখরুদ্দিন কবীর আতিক প্রমুখ।

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির গণবিরোধী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে গণতান্ত্রিক বাম জোট আহুত রোববারের ৬-২টা হরতাল পালনের আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, সরকার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করায় সাধারণ মানুষ এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। হরতালের সমর্থনে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপির উদ্যোগে গণসংযোগ ও প্রচারপত্র বিতরণের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া, ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু, মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম, মো. শওকত আলী প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ পল্টন মোড়, বিজয় নগর, নয়াপল্টন, শান্তিনগর, মালিবাগ মোড়, ফকিরাপুল মোড়, কমলাপুরে হরতালের পক্ষে গণসংযোগ করেন এবং প্রচারপত্র বিলি করেন।