শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে মুম্বাইকে হারালো রাজস্থান


তিন ওভারের মধ্যে চার উইকেট। ম্যাচটা হঠাৎ করেই জমিয়ে তুললেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুই বোলার ক্রুনাল পান্ডিয়া এবং জসপ্রিত বুমরাহ। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সেই উত্তেজনায় পানি ঢেলে দিলেন স্রেয়াশ গোপাল। হার্দিক পান্ডিয়াকে বাউন্ডারি মেরে জয় এনে দিলেন রাজস্থান রয়্যালসকে। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে তারা হারালো ৪ উইকেটের ব্যবধানে।

লক্ষ্য ছিল ১৮৮ রানের। বিশাল এ লক্ষ্য পাড়ি দিতে নেমে অবশ্য দুই ওপেনার আজিঙ্কা রাহানে এবং জস বাটলার মিলে জয়ের মূল ভিত তৈরি করে দেন রাজস্থানকে। শুরুতে ঝড় তুলে ২১ বলে ৩৭ রান করে আউট হন রাহানে। জুটি গড়েছিলেন ৬০ রানের।

এরপর জস বাটলার এবং সাঞ্জু স্যামসন মিলে গড়েন ৮৭ রানের জুটি। ২৬ বলে ৩১ রান করে আউট হন সাঞ্জু স্যামসন। তার আগেই অবশ্য বিদায় নেন বাটলার। ৪৩ বলে ৮৯ রানের ঝড় তুলে দিয়ে যান তিনি। ৮টি বাউন্ডারির সঙ্গে ছক্কা মারেন ৭টি।

শেষ দিকে দ্রুত চার উইকেট পড়ে যাওয়ার কারণে রাজস্থানের জয় নিয়ে কিছুটা সংশয় তৈরি হয়েছিল। শেষ মুহূর্তে তরী ডোবে কি না সেটাও ছিল চিন্তার বিষয়। শেষ পর্যন্ত ৭ বলে ১৩ রান করে স্রেয়াশ গোপাল রাজস্থানকে জয় এনে দেন। ৩ বল তখনও বাকি ছিল হাতে।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে কুইন্টন ডি ককের ৫২ বলে ৮১ এবং রোহিত শর্মার ৩২ বলে ৪৭ রানের ওপর ভর করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান সংগ্রহ করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

এ নিয়ে সপ্তম ম্যাচে দ্বিতীয় জয়ের দেখা পেলো রাজস্থান রয়্যালস। ৪ পয়েন্ট নিয়ে তারা রয়েছে ৭ নম্বরে। এর আগে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে হারিয়েছিল তারা। আর ৭ ম্যাচে ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।